শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

কুমিল্লায় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু

আপডেট : ১১ জুন ২০২৪, ০৯:৩২

কুমিল্লার দেবিদ্বারে বিদ্যুৎপৃষ্টে পৃথক দুই ঘটনায় জহিরুল ইসলাম (২৮) ও মো. মনির হোসেন (২৩) নামে দুই শ্রমিক মারা গেছেন। এ ঘটনায় আরও দুই শ্রমিক আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। 

আহত ব্যক্তিরা দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় দেবিদ্বার থানায় পৃথক দুটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।  

জানা গেছে, গত শনিবার বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার ইউসুফপুর ইউনিয়নের মোগসাইর গ্রামের রঞ্জিত দাসের পুকুরে ক্রুটিযুক্ত সেচপাম্পের ইলেকট্রিক মোটর মেরামত করতে গিয়ে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে পুকুরের পানিতে বিদ্যুৎতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই জহিরুল ইসলামের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে দেবিদ্বার থানা পুলিশ লাশ জহিরুলের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। 

নিহত জহিরুল ইসলাম ইউসুফপুর ইউনিয়নের এগারগ্রামের মো. সহিদ মিয়ার ছেলে।
  
অপর ঘটনার প্রত্যক্ষদশীর্রা জানান, রোববার (১০ জুন) বিকাল ৩টার দিকে পৌরসভার চান্দিনা রোডে হিলফুল ফুজুল স্কুলের পাশে সৌদি প্রবাসী জসিম উদ্দিনের নির্মাণাধীন ভবণের চারতলা ভবনে রশিতে লোহার রড বেঁধে উপরে তোলার সময় পাশে থাকা ফোর-ফোরটি বৈদ্যুতিক লাইনের তারে লেগে মনির হোসেনসহ আরও তিন শ্রমিক আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মনির হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় আহত শ্রমিক শাকিল ও সাগর বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।  

নিহত মনির হোসেন  মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানার টনকি ইউনিয়নের সোনারামপুর গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেনের ছেলে। 

মনিরের স্ত্রী রোজিনা আক্তার বলেন, ‘গত দুই বছর ধরে চান্দিনা রোডের একটি ভাড়া বাসায় থেকে নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করত আমার স্বামী। ওইদিন বিকালে কাজের ফাঁকে বাসায় এসে খাওয়া-দাওয়া শেষ করে আবার কাজে যায়। আমার দুই বছর ও ১০ মাসের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। আমি এ সন্তানদের নিয়ে আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছি।’    

দেবিদ্বার থানার ওসি মো. নয়ন মিয়া বলেন, ‘বিদ্যুৎপৃষ্টের পৃথক দুই ঘটনায় দুইজন মারা গেছেন। তাদের লাশ সুরতহাল শেষে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ বিষয়ে নিহতদের স্বজনরা কারও বিরুদ্ধে কোন লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’    

 

ইত্তেফাক/এসজেড