শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

রংপুরের শ্যামা সুন্দরী খাল ৫শ দখলদারের কাছে জিন্মি

আপডেট : ২৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:২১

৪ শত ৮২ জন দখলদারের কাছে জিন্মি হয়ে আছে রংপুরের শ্যামা সুন্দরী খালটি। নগরীর সিও বাজার এলাকার ঘাঘট নদীর উৎস মূখ থেকে শুরু হয়ে প্রায় ১৬ কিলোমিটার দীর্ঘ শ্যামা সুন্দরী খালটি নগরীর ভিতর দিয়ে খোখসা ঘাঘটের সঙ্গে মিলিত হয়েছে। ১৮৯০ সালে এই খালটির উদ্বোধন করেন স্যার স্টুয়ার্ট কেভিন বেইলি।

দখলদারদের কবল থেকে শ্যামা সুন্দরী খাল উদ্ধারের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার কে এম তরিকুল ইসলাম। 

গতকাল রংপুর জেলা প্রশাসকের সন্মেলন কক্ষে শ্যামা সুন্দরী খাল পুনরুজ্জীবন ও সচল রাখা আমাদের করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এই কথা বলেন।

মতবিনিময় সভায় বলা হয় ১ শত ৩০ বছরের পুরাতন এই খালটি তৎকালীন পৌরসভার চেয়ারম্যান ও ডিমলা রাজা  জানকি বল্লব সেন তার মা শ্যাম সুন্দরীর স্মরণে খনন করেছিলেন।

বর্তমানে খালটির ময়লায় পূর্ণ হয়ে গেছে। সংস্কার না করার কারণে মশার আবাসস্থলে পরিণত হয়েছে। ২৩ থেকে ৯০ ফুট প্রশস্ত খালটি বর্তমানে ৮ থেকে ১০ ফুটে পরিণত হয়েছে। ৪শত ৮২জন দখলদারের কাছে জিন্মি হয়ে পড়েছে খালটি। অনেকে বাড়ির পয়নিস্কাশনের লাইন খালের সঙ্গে সংযোগ করে দিয়েছেন। ফলে খালের পরিবেশ বিনষ্ট হয়ে পড়েছে।

২০০৭-৮ অর্থবছরে সে সময়ে রংপুর পৌরসভার তৎকালীন মেয়র আব্দুর রউফ মানিকের সময়কালে খালটি খনন করা হয়েছিলো। পরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ২০১২ সালে শ্যামা সুন্দরী খাল সংস্কার, ওয়ানওয়ে ও খালের ওপর সেতু নির্মাণ কাজ শুরু করলে সেই কাজটি অজ্ঞাত কারণে বন্ধ হয়ে যায়। পরে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড খাল খননের একটি প্রকল্প হতে নেয়। সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রায় আড়াই কিলোমিটার খাল খনন করেছে। বর্তমানে তা অব্যাহত থাকলেও এর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত বলে মনে করছেন নগরবাসী।

সভায়, রংপুর সিটি কর্পোরেশন, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারীং কোরের তত্ত্বাবধানে শ্যামা সুন্দরী খাল পুনরুজ্জীবন ও সচল রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এটি প্রকল্প আকারে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে প্রেরণ কারার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় এবং আগামী সেপ্টেম্বর মাসে এর প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়। সেই সাথে শ্যামা সুন্দরী খাল দখলদারদের চিহিৃত করে  তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: ভাঙ্গায় খাল থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান, রংপুর সেনাবাহিনীর স্টেশন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার সামস উদ্দিন, রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, রংপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাফিয়া খানম, রংপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি রশীদ বাবু, সাধারণ সম্পাদক রফিক সরকার, রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হারুনার রশীদ ও নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মাহামুদসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

ইত্তেফাক/নূহু