ঢামেক চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম টিকা নিলেন যিনি

ঢামেক চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম টিকা নিলেন যিনি
ডা. শেখ নুরুল ফাত্তাহ রুমি। ছবি: ইত্তেফাক

রাজধানীর পাঁচ হাসপাতালে বৃহস্পতিবার সকালে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। এই পাঁচ হাসপাতালের মধ্যে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও টিকা প্রদান করা হয়। সেখানে টিকা গ্রহণ করেন হাসপাতালের নাক, কান ও গলা সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. শেখ নুরুল ফাত্তাহ রুমি।

টিকা গ্রহণের পর ডা. শেখ নুরুল ফাত্তাহ রুমি বলেন, ‘টিকা গ্রহণ করেছি সকাল সাড়ে ৯ টায়। এখনো কোন অসুবিধা হয়নি। আমি একেবারে স্বাভাবিক আছি। কোনরকম অসুবিধা হচ্ছে না। আমি আবার দেড়মাস পরে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করবো। তাই সবাইকে আহ্বান জানাবো কোন ভয়ভীতি না করে টিকা গ্রহণ করতে।’

আরও পড়ুন: মন্ত্রিসভার প্রথম সদস্য হিসেবে টিকা নিলেন পলক

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে টিকা গ্রহণ করার পর দৈনিক ইত্তেফাক অনলাইনকে এমনটাই জানালেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি এরই মধ্যে টিকা নেওয়ার পর পরীক্ষার হলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিয়ে আসছি। টিকাতে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।’

রাজধানীর পাঁচ হাসপাতালে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া শুরু হওয়া এ কার্যক্রমের প্রথম টিকা নেন।

টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। ছবি: সংগৃহীত

এরমধ্যে মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে এ টিকা দেওয়া হচ্ছে। সব মিলিয়ে পাঁচ হাসপাতালে পাঁচ শতাধিক ব্যক্তিকে টিকা দেওয়ার কথা আছে।

আরও পড়ুন: রাজধানীর পাঁচ হাসপাতালে টিকা দেওয়া শুরু

এর আগে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে বহু প্রতীক্ষিত টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। গতকাল বুধবার বিকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে প্রথম পাঁচ জনকে টিকা দেওয়া প্রত্যক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী। ওই পাঁচজনসহ গতকাল মোট ২৬ জনকে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়া হয়েছে।

ইত্তেফাক/কেএইচ/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x