ঢাকা শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬
৩০ °সে


পুকুর লিজে অনিয়ম: সচিব, ডিসিসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের রুল

পুকুর লিজে অনিয়ম: সচিব, ডিসিসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের রুল
ফাইল ছবি

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের ১১০টি খাস পুকুর লিজ প্রদানের দরপত্র প্রক্রিয়া কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, জানতে চেয়ে ভূমি মন্ত্রনালয়ের সচিব, গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক ও গোবিন্দগঞ্জের ইউএনওসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট রুল জারি করেছেন। এছাড়া এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কেন আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে না ? আগামি চার সপ্তাহের মধ্যে এই সব বিষয়ের জবাব দিতে বিবাদীদের আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বাকি বিবাদীরা হলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি), ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা, গাইবান্ধা জেলা ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা এবং মৎসজীবী সমিতির আটজন সভাপতি।

গোপন প্রক্রিয়ায় তড়িঘড়ি পুনঃ দরপত্রে নীতিমালা উপেক্ষা করে অনিয়ম ও কমিশন বাণিজ্যের মাধ্যমে সরকারি এই ১১০টি পুকুর প্রভাবশালী মহল ও অ-মৎসজীবী সমিতিকে ইজারা দেওয়া হয়। এই অভিযোগ এনে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ১৬টি মৎসজীবী সমিতির পক্ষে সাপমারা মৎসজীবী সমিতির সভাপতি আব্দুল লতিফ মণ্ডল গত ২১ এপ্রিল হাইকোর্টে রিট আবেদন দাখিল করেন।

হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও রাজিক আল জলিলের দ্বৈত বেঞ্চ গত ৩০ এপ্রিল শুনানিতে বিবাদীদের বিরুদ্ধে রুল জারির এই আদেশ দেন। পরে গত ৮ মে বিচারপতিদের স্বাক্ষরিত আদেশের কপি গাইবান্ধা পৌঁছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রামকৃষ্ণ বর্মণ বলেন, অনিয়মের অভিযোগ ভিত্তিহীন। আদালতের দেওয়া নির্দেশ মেনে যথা সময়ে রিটের জবাব দাখিল করা হবে।

আরও পড়ুন: তাদের মেরুদণ্ড সোজা করেছে মেরুদণ্ডহীন প্রাণী

রিট আবেদনকারী আব্দুল লতিফ মণ্ডল বলেন, গেজেটে একটি সমিতি দুইটির বেশি পুকুর লিজ পাবে না উল্লেখ থাকলেও তা লঙ্ঘন করে একটি সমিতিকে ১০ থেকে ১১টি করে পুকুর লিজ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া যে সব সমিতিকে পুকুর গুলো লিজ দেওয়া হয় সেই সমিতি গুলোর সভাপতি/সম্পাদক মৎসজীবী নন।

প্রসঙ্গত, গোবিন্দগঞ্জের ১২১টি পুকুর ইজারা দেওয়ার জন্য দরপত্র আহ্বান করে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রথম বিজ্ঞপ্তি দেয় উপজেলা প্রশাসন। ৬ মার্চ সেই দরপত্র দাখিল করাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে জড়ায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুইটি পক্ষ। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এ পরিস্থিতিতে দরপত্র স্থগিত করে পরবর্তীতে গত ২৪ মার্চ পুনঃদরপত্র আহ্বান করে। সেই দরপত্রে ৩ এপ্রিল ১১০টি পুকুর লিজ দেওয়া হয়।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন