ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬
২৮ °সে


সাকিবের পর মুশফিকের দাপট

সাকিবের পর মুশফিকের দাপট
দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৩ রান করেন মুশফিকুর রহিম : এএফপি
বাকি ম্যাচগুলো যেমন তেমন; আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটা বাংলাদেশের জন্য বিশেষ কিছু ছিলো। বাংলাদেশের চেয়ে ক্রিকেটে নবীন ও পিছিয়ে থাকা এই দলটি বাংলাদেশের জন্য সম্প্রতি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। ফলে এই দলটির সাথে খেলা ছিলো বাংলাদেশের জন্য সম্মানের লড়াই।

সেই লড়াইয়ে বাংলাদেশকে একটু হলেও এগিয়ে রেখেছিলেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান। এই দু জনের ইনিংসে ভর করে বোলিং সহায়ক উইকেটে আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ২৬২ রান তুলেছিলো বাংলাদেশ। জবাবে আফগানিস্তান স্থিতিশীলভাবে শুরু করেছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তারা ২৭ ওভারে ১০১ রান তুলেছে ২ উইকেট হারিয়ে।

এর আগে টসে জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় আফগানিস্তান। স্পিনের বিপক্ষে ভালো বলে কাল ইনিংস শুরু করার দায়িত্ব দেওয়া হয় লিটন দাসকে। তামিম ইকবালের সঙ্গে শুরুটা একেবারে খারাপ করেননি লিটন। তিনি ১৭ বলে ১৬ রান করে আউট হয়ে যান। লিটনের আউটটা ছিলো অবশ্য অত্যন্ত বিতর্কিত। রিপ্লেতে দেখা যায় তার ক্যাচটা ধরার আগে বল মাটিতে লেগেছিলো। কিন্তু মাঠের আম্পায়ার লিটনকে আউট ঘোষনা করার পর বিতর্কিতভাবে তৃতীয় আম্পায়ারও একই সিদ্ধান্ত দেন।

লিটন আউট হওয়ার পর তামিমকে নিয়ে প্রথম পাল্টা আক্রমণ করেন সাকিব। তামিম ৫৩ বলে ৩৬ রান করে ফিরে আসেন। এরপর মুশফিকের সাথে জুটি করে এগোতে থাকেন সাকিব।

এবার বিশ্বকাপে পঞ্চম বারের মতো ৫০ পার করা ইনিংস খেলেন সাকিব। এর ভেতর দিয়ে চলতি বিশ্বকাপে আবারও সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়ে ওঠেন। সেই সাথে বিশ্বকাপের ইতিহাসে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এক হাজার রান করে ফেলেন সাকিব।

শেষ পর্যন্ত ৬৯ বলে ৫১ রানের ইনিংস খেলে ফিরে আসেন সাকিব। তবে মুশফিকের লড়াই জারি ছিলো আরও অনেকক্ষন। সাকিব ফেরার পরপরই ৩ রান করে ফেরেন সৌম্য সরকার। তিনি লিটনকে জায়গা দিতে এদিন মিডল অর্ডারে ব্যাট করেছিলেন। মুশফিকের সাথে এসে যোগ দেন মাহমুদউল্লাহ। তিনি ৩৮ বলে ৫৭ রান করে ফেরেন। এরপর ফিরে আসেন মুশফিক। তিনি ৮৭ বলে ৪টি চার ও একটি ছক্কায় সাজানো ৮৩ রানের ইনিংস খেলেন। মুশফিকের সামনে সুযোগ ছিলো টানা দ্বিতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি করার। কিন্তু দলের রান বাড়াতে গিয়ে অল্পের জন্য সেটা মিস করেন।

আরও পড়ুন: কিশোরীকে বিক্রি মামলায় মুন্সীগঞ্জে একজনের যাবজ্জীবন, ৩ জনের ৭ বছর কারাদণ্ড

এরপর দলের রানটা বাড়ানোর আসল কাজ করেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। তিনি ২৪ বলে ৩৫ রানের ইনিংস খেলে ফেরেন।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন