ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬
৩২ °সে


কাঁচা মরিচের দাম ঊর্ধ্বমুখী, ঠেকাতে ভারত থেকে আমদানি

কাঁচা মরিচের দাম ঊর্ধ্বমুখী, ঠেকাতে ভারত থেকে আমদানি
ঊর্ধ্বমূখী দাম ঠেকাতে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি করা হচ্ছে কাঁচা মরিচ। ছবি: ইত্তেফাক

দেশের বাজারে কাঁচা মরিচের দাম ঊর্ধ্বমুখী। ইতিমধ্যে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীরা কাঁচা মরিচ আমদানি করতে শুরু করেছেন। দেশের বাজারে আসতে শুরু করেছে ভারতীয় কাঁচা মরিচ। ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, কয়েকদিনের মধ্যে দাম কমবে।

বন্দরের ব্যবসায়ীরা জানান, বন্যায় কাঁচা মরিচের আবাদ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে বাজারে কাঁচা মরিচের সংকট দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় দেশের বাজারে কাঁচা মরিচের দাম স্বাভাবিক রাখতে ভারতের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি শুরু হয়েছে।

বন্দরের ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন জানান, গত শনিবার (২০ জুলাই) আমদানি করা প্রথম চালানটিতে প্রায় ১৯০ মেট্রিকটন কাঁচা মরিচ আমদানি করা হয়েছে। প্রতি কেজি আমদানি করতে সরকারকে ২১ টাকার মত শুল্ক দিতে হচ্ছে। বাজারে দামের উর্ধ্বমুখী ভাব ঠেকাতে এবং সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে শুল্ক কমানো হলে ব্যবসায়ীরা বেশি করে আমদানি করতে পারবেন।

বাজার ঘুরে জানা গেছে, বন্দরের মোকামে বর্তমানে আমদানি করা ভারতীয় কাঁচা মরিচ মানভেদে ৯০ থেকে ১১০ টাকা কেজিতে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে। কয়েকদিনের মধ্যে আরও দাম কমবে।

আরও পড়ুন: ৩০ বছর পর নবযৌবনে বড়াল, বইছে আনন্দস্রোত

এদিকে হিলিসহ বিভিন্ন বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১০/১২দিন আগে কাঁচা মরিচ ৫০-৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছিল। এক সপ্তাহের ব্যবধানে পণ্যটির দাম বেড়ে ১২০-১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।শনিবার ভারতীয় কাঁচা মরিচের আমদানির খবরে কেজিতে ২০-৩০ টাকা কমে মানভেদে ১০০-১১০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। হিলি স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা নুর আমীন জানান, এই বন্দর দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাঁচা মরিচ আমদানি হয়নি। কিন্তু দেশে হঠাৎ কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় গত শনিবার থেকে ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে আমদানি করছেন। আমদানি করা পণ্যটির দ্রুত শুল্কায়ণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ব্যবসায়ীদের খালাসের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। যাতে করে তারা সঠিক সময়ে বাজারে সরবরাহ করতে পারেন।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন