ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৮ °সে


বাঁচতে চান ক্যান্সার আক্রান্ত ছাত্রী প্রিয়াংকা রায়

বাঁচতে চান ক্যান্সার আক্রান্ত ছাত্রী প্রিয়াংকা রায়
হাসপাতালের বেডে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের ছাত্রী প্রিয়াংকা রায়। ইনসেটে সুস্থ্য থাকা অবস্থায় প্রিয়াংকা। ছবি: সংগৃহীত

প্রিয়াংকা রায়। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের ছাত্রী। পড়াশুনা সব কিছুই ঠিক মত চলছিল। কিন্তু হঠাৎই ধরা পড়লো ক্যান্সার। তারপর থেকে সব উলটপালট। তবে প্রিয়াংকা রায় এখানেই থেমে যেতে চান না। তিনি বাঁচতে চান। পড়াশুনা করে স্বপ্নকে ছুতে চান।

প্রিয়াংকা রায়ের গ্রামের বাড়ি মাগুরার বাউলিয়ায়। তিন বোন এবং এক ভাইয়ের মধ্যে তৃতীয় তিনি। তার দুই বোন এবং ভাই শিক্ষারত অবস্থায় আছেন। প্রিয়াংকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তার বিভাগে ১ম স্থান অধিকারী ছাত্রী। একাধিক সেমিস্টারে সিজিপিএ ৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন।

৩ জুলাই প্রিয়াংকা রায়ের ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে। বর্তমানে ভারতের মুম্বাই টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্রিয়াংকা একিউট লিউকেমিয়া (ব্লাড ক্যান্সার) রোগে আক্রান্ত। ২ মাস চিকিৎসার পর তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে আরো তিনটি কেমো প্রয়োজন। তার চিকিৎসার জন্য আনুমানিক ২০ লাখ টাকা প্রয়োজন।

হাসপাতালের বেডে প্রিয়াংকা। ছবি: সংগৃহীত

প্রিয়াংকার বাবা যশোরের আগড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক। তিনি বলেন, স্বল্প আয়ে মেয়ের চিকিৎসা চালানো কঠিন হয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে তিনি এ পর্যন্ত মেয়ের চিকিৎসার খরচ যোগাতে গিয়ে নিঃস্ব হওয়ার পথে।

তিনি বলেন, সকলের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রয়াসে আমাদের মাঝে আবারো ফিরে আসবে প্রিয়াংকা। তার স্বপ্ন জড়ান ক্যাম্পাসে ভবিষ্যতে দেশসেবায় ব্রতী নিয়ে কাজ করে যাবে। এ জন্য সবার একটু আন্তরিক চেষ্টা ও সাহায্য বাঁচাতে পারে একটি সুন্দর জীবন।

প্রিয়াংকার পরিবার সবার কাছে সাহায্যের জন্য আহ্বান জানিয়েছে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে যতটুকু সম্ভব তার জীবনকে বাঁচাতে এগিয়ে আসার অনুরোধ করেছে। প্রিয়াংকার জীবন যেন অর্থের কাছে হেরে না যায়।

আর্থিক সাহায্য পাঠানোর মাধ্যম: রকেট-০১৭৪০৪৬৭০২৯০, বিকাশ-০১৯৫৬৫৮১৩৭৫ (এখানে সকল মোবাইল একাউন্ট পার্সোনাল এবং ফার্মেসি ৪র্থ বর্ষ ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের)।

ব্যাংক একাউন্ট: ০২০০০০৬১২৯৩৫৩, মারিয়া রামান মুন। অগ্রণী ব্যাংক। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন