ঢাকা বুধবার, ২২ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩৫ °সে


এমন খুনে ব্যাটিংয়ের পরও হার!

এমন খুনে ব্যাটিংয়ের পরও হার!
দানবীয় এক সেঞ্চুরি পর দর্শকদের অভিবাদনের জবাব দেন ক্রিস গেইল। ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

প্রায় ছয় মাস পর জাতীয় দলের হয়ে খেলতে নেমেই পেয়েছেন দানবীয় এক সেঞ্চুরি। তবুও দিন শেষে বিজয়ী দলের অংশ হতে পারলেন না ক্রিস গেইল। কারণ, তার ক্যারিয়ারের ২৪ সেঞ্চুরিকে ম্লান করে দিয়েছেন ইংল্যান্ডের জেসন রয় এবং জো রুট। এই দু’জনের সেঞ্চুরিতে ছয় উইকেটের বিশাল এক জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ইংল্যান্ড দল।

হাই স্কোরিং ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ নির্ধারিত ৫০ ওভারে আট উইকেটে করেছিল ৩৬০ রান। জবাব দিতে নেমে আট বল ও ছয় উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারী ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ডের ওয়ানডে ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে পাওয়া জয়। ক্যারিয়ারের সপ্তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি পাওয়া জেসন রয় করেছেন ১২৩ রান। অন্যদিকে, ১৪ তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি পাওয়া জো রুট ১০২ রান করেন। বার্বাডোজের কিংসটন ওভালে পাওয়া এই জয়ের সুবাদে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইয়ন মরগ্যানের দল। আজ শুক্রবার সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেটি অনুষ্ঠিত হবে একই ভেন্যুতে।

ক্রিস গেইল ধীরগতিতেই শুরুটা করেছিলেন। প্রথম ৩৬ বলে রান ছিল মাত্র ১২। ৩৭ তম বলে হাঁকান নিজের ইনিংসের প্রথম ছক্কা। সেখান থেকে তার ইনিংসের বদলে যাওয়ার সূচনা হয়। ইনিংসটা যখন শেষ হয় তখন নামের পাশে লেখা হয়ে গেছে ১৩৫ রান। ইনিংসে ছিল ১২ টি ছক্কা ও তিনটি চার। এই ইনিংসের সুবাদে গেইল যেমন রেকর্ড ছুঁয়েছেন, রেকর্ড ছুঁয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজও।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ফরম্যাট মিলে গেইলের ছক্কার সংখ্যা এখন ৪৮৮। বুধবার রাতেই তিনি ছাড়িয়ে গেছেন শহীদ আফ্রিদি। পাকিস্তানের এই অলরাউন্ডার ৫০৮ ইনিংসে হাঁকিয়েছেন ৪৭৬ টি ছক্কা। আর গেইল তাকে ছাড়িয়ে যেতে খেললেন ৫১৪ টি ইনিংস।

দলীয় ভাবে এদিন ২৩ টি ছক্কা পেয়েছেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা। এটা ওয়ানডের ইতিহাসেই নতুন এক রেকর্ড। আগের রেকর্ডটি কাকতালীয় ভাবে ছিল এই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই। ২০০৪ সালে কুইন্সটাউনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাত্র ২১ ওভারের ম্যাচেই ২২ টি ছক্কা হাঁকিয়েছিল নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা।

আরো পড়ুন: লাথি মেরে আম্পায়ারের নাক ভাঙলেন নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটাররা

গেইল সর্বশেষ কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন চার বছর আগে। সেঞ্চুরিটি ছিল ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। গেইল সেঞ্চুরিটা পেয়েছেন ৩৯ বছর ১৫২ দিন বয়সে। এর চেয়ে বেশি বয়সী ক্রিকেটার হিসেবে এর আগে সেঞ্চুরি পেয়েছেন কেবল দু’জন। তারা হলেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের খুররম খান ও শ্রীলঙ্কান সনাৎ জয়াসুরিয়া। খুররমের সেঞ্চুরিটা এসেছিল ৪৩ বছর ১৬২ দিনে। আর জয়াসুরিয়া সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন ৩৯ বছর ২১২ দিনে। এই হিসেবে আসছে বিশ্বকাপের মঞ্চে সেঞ্চুরি পেলে গেইল ছাড়িয়ে যাবেন জয়াসুরিয়াকে।

ইত্তেফাক/মোস্তাফিজ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন