ঢাকা শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৭
২৬ °সে

দাউদকান্দিতে ময়লার ভাগাড়ে বস্তা বস্তা পচা পেঁয়াজ

দাউদকান্দিতে ময়লার ভাগাড়ে বস্তা বস্তা পচা পেঁয়াজ
ময়লা ভাগাড়ে পড়ে আছে বস্তা বস্তা পচা পেঁয়াজ : ইত্তেফাক

পেঁয়াজের উর্ধ্বমূল্যের মধ্যেই দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বাজারে গুদামজাত পচা পেয়াজের দুর্গন্ধে এলাকা সয়লাব হয়ে গেছে। ময়লার ভাগাড়ে বস্তায় বস্তায় ফেলে দেয়া এসব পেঁয়াজের রহস্যের জটও খুলেছে।

সোমবার রাতে গৌরীপুর বাজারের পূর্ব অংশে গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্রিজের পাশে যেখানে বাজারের ময়লা আবর্জনা ফেলা হয় সেখানে গৌরীপুর বাজারের ভাই ভাই এন্টারপ্রাইজ এর ব্যবসায়ীরা গুদামজাত পচা বস্তায় বস্তায় পেঁয়াজ ফেলে যায়। সেই সব পচা পেঁয়াজের দুর্গন্ধ এলাকা সয়লাব হয়ে যায়।বিষয়টি লোকমুখে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হতে থাকলে স্থানীয় প্রশাসনের লোকেরা ঐ এলাকা পরিদর্শনে যান এবং অসংখ্য পচা পেঁয়াজের বস্তা দেখতে পান।

আরো পড়ুন: ১৬তম স্প্যান বসছে আজ, দৃশ্যমান হবে ২৪শ’ মিটার

দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল ইসলাম খান রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে বলেন, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি ফেলে যাওয়া পচা পেঁয়াজের বস্তাগুলো স্থানীয় ভাই ভাই এন্টারপ্রাইজ এর। এগুলো অবৈধভাবে মজুদ করেছিল কিনা তা তদন্ত সাপেক্ষে জানা যাবে।’

এ প্রসঙ্গে আজ মঙ্গলবার ভাই ভাই এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী একরাম বলেন ‘ মায়ানমার থেকে টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে আমরা এই পেঁয়াজগুলো আমদানি করি। ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে পেঁয়াজগুলো যথাসময়ে আমরা খালাস করাতে পারিনি। নির্ধারিত সময়ের অনেক পরে আমরা পেঁয়াজগুলো খালাস করতে সক্ষম হলেও অনেক পেঁয়াজ সেখানেই পচন ধরে। এরপর টেকনাফ থেকে গৌরীপুরে আমাদের গোডাউনে নিয়ে আসতে পেঁয়াজ পচে যায়। আমাদের প্রায় ৬০/৭০ বস্তা পেঁয়াজ পচে গেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘পেঁয়াজগুলি বৈধভাবে আমদানি করা হয়েছে। অবৈধভাবে আমরা মজুদ করিনি। পেঁয়াজ পচে যাওয়াতে আমরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।’

ইত্তেফাক/এমআরএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন