সরকারি বিএম কলেজের সমাজকল্যাণ বিভাগে মুখোশধারীদের সশস্ত্র হামলা 

সরকারি বিএম কলেজের সমাজকল্যাণ বিভাগে মুখোশধারীদের সশস্ত্র হামলা 
সমাজকল্যাণ বিভাগে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা।ছবি: ইত্তেফাক

বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের সমাজকল্যাণ বিভাগে সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা। বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টার দিকে এ হামলায় সমাজকল্যাণ বিভাগের কম্পিউটার অপারেটর মিজানুর রহমান বাচ্চুকে কুপিয়ে জখমও করা হয়েছে। তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছেন সহকর্মীরা। এ সময় সন্ত্রাসীরা ঐ বিভাগের সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রণকারী কম্পিউটার সিপিইউ নিয়ে যায়।

আহত কম্পিউটার অপারেটর মিজানুর রহমান বাচ্চু জানান, মার্কশীট (নম্বর ফর্দ) নেওয়ার কথা বলে তাকে মুঠোফোনে কল দিয়ে কলেজের সমাজকল্যাণ বিভাগে ডেকে নেয় অজ্ঞাতরা। দুপুর ১টার দিকে সেখানে পৌঁছামাত্র আগে থেকে অবস্থানকারী মাস্ক পরিহিত একদল দুর্বৃত্ত লাঠি, লোহার রড ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত তার ওপর হামলা চালায়। এতে সে রক্তাক্ত জখম হয়। এরপর হামলাকারীরা সমাজকল্যাণ বিভাগে শিক্ষকদের কক্ষে ঢুকে এলোপাথাড়ি ভাংচুর করে। তারা ক্যামেরার মনিটর, টেলিভিশন, টেলিফোন, শিক্ষকদের সকল টেবিলের গ্লাস ভাংচুর এবং অন্যান্য আসবাবপত্র তছনছ করে।

পরে তারা সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রণকারী কম্পিউটারের সিপিইউ নিয়ে চলে যায় বলে জানান আহত বাচ্চু।

আরও পড়ুন: বরিশালে শিক্ষককে কান ধরে উঠ-বসের ঘটনায় মামলা

বিএম কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া জানান, করোনার কারণে কলেজ বন্ধ থাকলেও নম্বর ফর্দ দেওয়ার জন্য সকল বিভাগের অফিস খোলা রয়েছে। তিনি হামলার কারণ এবং হামলাকারীদের পরিচয় সম্পর্কে কিছুই জানাতে পারেননি। তবে হামলাকারীরা সংখ্যায় ২০-২৫ জন বলে তিনি জানান।

এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ।

বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের ওসি নুরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। কাউকে এখন পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়নি।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত