ঢাকা সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬
২৮ °সে


মাকে গলা কেটে হত্যার পর লাশের পাশে মেয়েকে ধর্ষণ

মাকে গলা কেটে হত্যার পর লাশের পাশে মেয়েকে ধর্ষণ
ঘাতক-ধর্ষক সামিউল। সংগৃহীত ছবি

নওগাঁর মান্দায় মাকে গলা কেটে হত্যার পর অস্ত্রের মুখে মেয়েকে ধর্ষণ করেছে মেয়ের সাবেক প্রেমিক। সোমবার দিবাগত গভীর রাতে মেয়েটির বাড়ির শোবার ঘরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে ঘাতক-ধর্ষক সামিউল ইসলাম সাগরকে (২২) আটক করেছে পুলিশ।

নিহত নারীর নাম নাসিমা আক্তার সাথী (৪০)। তিনি মান্দা উপজেলার প্রসাদপুর ইউনিয়নের দ্বারিয়াপুর গ্রামের এমদাদুল হক মণ্ডলের স্ত্রী। হত্যা ও ধর্ষণের অভিযোগে আটক সাগর উপজেলার কুসুম্বা ইউনিয়নের চকশ্যামরা গ্রামের জান মুহম্মদের ছেলে।

নিহতের স্বামী এমদাদুল হক বলেন, আমি নাটোরের একটি ফার্মে নৈশপ্রহরীর চাকরি করি। বাড়িতে স্ত্রী ও ছোট মেয়ে এক সঙ্গে থাকতো। সোমবার গভীর রাতে মোবাইল ফোনে স্ত্রীর মৃত্যুর সংবাদ জানতে পারি।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন বলেন, নিহতের ছোট মেয়ের সঙ্গে আটক সাগরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি সেই সম্পর্কে টানাপোড়ন শুরু হয়। ঘটনার রাতে সাগর বাড়ির পেছনের দিক দিয়ে ছাদে উঠে অপেক্ষা করতে থাকে। পরে ছাদ থেকে নেমে মেয়েটির ঘরে যায় সাগর।

আরো পড়ুন: প্রেমের টানে জার্মান নারী এখন খুলনার গ্রামে

ওসি আরো জানান, তাদের দু’জনের কথা-কাটাকাটির সময় সাথী জেগে উঠলে নিজের সঙ্গে আনা ছুরি দিয়ে সাগর তাকে কোপাতে শুরু করে। উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তার গলা কেটে হত্যা করে সাগর। পরে ওই ছুরির মুখে জিম্মি করে তার মেয়েকে ধর্ষণ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক সাগর এ তথ্য দিয়েছে বলে জানান ওসি। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এমআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন