ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬
২৯ °সে


খতনার সময় শিশুর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন চিকিৎসক

খতনার সময় শিশুর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন চিকিৎসক
গোপালগঞ্জে চার বছরের এক শিশুকে খতনা করতে নিয়ে গেলে দুর্ঘটনা বশত শিশুটির পুরুষাঙ্গের কিছু অংশ কেটে ফেলেন চিকিৎসক। ছবি: পিবিএ

গোপালগঞ্জে তামিম মাহমুদ নামে সাড়ে ৪ বছরের এক শিশুকে সুন্নতে খতনা করতে গিয়ে পুরুষাঙ্গের কিছু অংশ কেটে ফেলেছেন এক চিকিৎসক। পরে ওই শিশুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের কলেজ মসজিদ সড়কের ডা. হাফেজ মাহফুজুর রহমানের মালিকানাধীন জিম ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ওই শিশু শহরের আরামবাগের এলাকার তারেক মাহমুদের ছেলে। শিশুটির বাবা তারেক মাহমুদ জানান, বুধবার সকাল ১০টায় তার শিশুকে সুন্নতে খতনা করার জন্য শহরের জিম ক্লিনিকে আনা হয়। সকাল ১০টা ২০ মিনিটে ওই ক্লিনিকের মালিক ডা. হাফেজ মাহফুজুর রহমানের সুন্নতে খতনা দেওয়ার জন্য অপারেশন থিয়েটারে নেন। খতনার সময় ওই চিকিৎসক আমার ছেলের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেছেন।

পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে ঢাকা নিয়ে যেতে বললে তাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়।

আরও পড়ুন: বাবার ওপর প্রতিশোধ নিতে ছেলেকে হত্যা

গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের সহকারি অধ্যাপক (সার্জারি) অনুপ কুমার মজুমদার জানিয়েছেন, পুরুষাঙ্গের কাটা অংশ সংরক্ষণ করে ওই শিশুকে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার জন্য তার পরিবারকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। দ্রুত মাইক্রো সার্জারি করাতে পারলে এটি ভালো হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

অভিযুক্ত চিকিৎসক হাফেজ মাহফুজুর রহমান জানিয়েছেন, এটি একটা দুর্ঘটনা। শিশুকে সুন্নতে খতনা দেওয়ার সময় সে হাত-পা ছোড়াছুড়ি করার ফলে এমনটি ঘটেছে। ঘটনাটি দুঃখজনক।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৬ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন