ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬
২৮ °সে


বাহাদুরাবাদ ঘাটে বন্যার পানি বিপদসীমার ১৬৫ সেন্টিমিটার ওপরে

বাহাদুরাবাদ ঘাটে বন্যার পানি বিপদসীমার ১৬৫ সেন্টিমিটার ওপরে
বন্যায় ভেসে গেছে ঘরবাড়ি। ঘরের ওপর কাপড় শুকাচ্ছে মানুষ। ছবি: ইত্তেফাক

জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। ১৬ জুলাই বিকাল ৩টা পর্যন্ত যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে বিপদ সীমার ১৬৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এ তথ্য জানিয়েছেন জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) এর নির্বাহী প্রকৌশলী নবকুমার চৌধুরী এবং পানি মাপক গেজ পাঠক আব্দুল মান্নান।

তারা জানান, গত ১৯৮৮সালে ১২২ সেন্টিমিটার এবং ২০১৭ সালে ১৩৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়েছিলো। এবার তার চেয়ে বেশী ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। অর্থাৎ গত ১০০ বৎসরের মধ্যে এই সর্বোচ্চ পানি বিপদসীমা অতিক্রম করছে।

ইসলামপুর স্টেশন মাস্টার মো. মিজানুর রহমান জানান, দেওয়ানগঞ্জ-মেলান্দহ দুরমুঠ রেলওয়ে স্টেশনের মধ্যবর্তী বিভিন্ন স্থানে রেললাইন পানিতে তলিয়ে গেছে। ফলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ রুটে সকল ট্রেন যাতাযাত বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে ঢাকা-জামালপুর পর্যন্ত ট্রেন চলাচল করছে।

অপরদিকে সারা জেলায় ৪৫৪টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ১৮২টি মাদ্রাসা, ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ মোট ৬৬৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে জেলা ত্রাণ ও পুণর্বাসন অফিস সূত্রে জানা যায়, জামালপুরের ৭টি উপজেলার ৬৮ইউনিয়নের মধ্যে ৪৯টি ইউনিয়নসহ ৩টি পৌরসভা বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। এতে প্রায় প্রায় ৪ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ৪৭৫টি বাড়ি সম্পুর্ণরূপে এবং ১৫৯০টি বাড়ি আংশিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এতে প্রায় ১০ কিলোমিটার পাকা রাস্তা এবং ২০ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা সম্পূর্ণরূপে বিলীন হয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষসহ গৃহপালিত পশু, গরু, মহিষ, ছাগল, হাঁস, মরগি পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এসব এলাকায় বন্যা কবলিত মানুষগুলো উচু বাঁধে, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নিয়েছে। বানভাসিদের শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানি এবং গো খাদ্যের চরম সংকট দেখা দিয়েছে।

ইসলামপুর উপজেলার সাপধুরী, বেলগাছা, চিনাডুলী, কুলকান্দি ইউনিয়নের যমুনার দ্বীপ চরের লোকজন নৌকার অভাবে তাদের ঘরের ধান চাল এমনকি গৃহপালিত পশু নিরাপদ স্থানে নিতে পারছে না বলে বেলগাছা ইউপির চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক জানিয়েছেন।

বন্যা কবলিত এলাকার মধ্যে রয়েছে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চুকাইবাড়ী, চিকাজানী, বাহাদুনাবাদ, চর আমখাওয়া ইউনিয়ন, ইসলামপুর উপজেলার পার্থর্শী কুলকান্দি, বেলগাছা, চিনাডুলী, নোয়ারপাড়া, ইসলামপুর সদর, পলবান্দা, ইসলামপুর পৌরসভা, গোয়ালের চর,গাইবান্দা, চরগোয়ালীনী ও চরপুটিমারী ইউনিয়ন।

আরও পড়ুন: হবিগঞ্জে জমির জন্য ভাতিজাকে খুন করিয়েছে বিজিবি সদস্য চাচা

এছাড়া মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর, শ্যামপুর, মেলান্দহ পৌরসভা, নাংলা, আদ্রা,ফুলকোচা, ঝাউগড়া, ও ঘোষেরপাড়া ইউনিয়ন। মাদারগঞ্জ উপজেলার গুনারীতলা জোড়খালী, বালিজুড়ি ও চর পাকেরদহ ইউনিয়ন। সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা, আওনা, পোগলদিঘা, সাত পোয়া ও কামরাবাদ ইউনিয়ন। বকশিগঞ্জ উপজেলার সাদুরপাড়া, মেরুরচর, বগারচর, ইউনিয়ন, জামালপুর সদর উপজেলার লক্ষীরচর,তুলশিরচর ইউনিয়ন বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। ইসলামপুর এবং দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সদরের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন