ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬
৩৬ °সে


পানিতে ডুবে, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ও সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১০

পানিতে ডুবে, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ও সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১০
ছবি: প্রতীকী

বরিশাল, মাগুরা, সুনামগঞ্জ, কুড়িগ্রামে পানিতে ডুবে শিশু, যুবক ও বৃদ্ধাসহ ৫ জন মারা গেছেন। অপরদিকে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নাটোর এবং খুলনায় কৃষকসহ এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদিকে হবিগঞ্জ ও ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার রাত ও শনিবারে পৃথক এই দুর্ঘটনাগুলো ঘটে।

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সংবাদদাতা জানান, আগৈলঝাড়ায় পানিতে ডুবে প্রতিভা অধিকারী নামের আশি বছরের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের কদমবাড়ি গ্রামে দ্বীজেন অধিকারীর স্ত্রী আশি বছরের প্রতিভা অধিকারী শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে পুকুরে পড়ে যান। অনেক খুঁজে না পেলে পরে সন্ধ্যায় বাড়ির পাশের পুকুর থেকে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীপুর (মাগুরা) সংবাদদাতা জানান, মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার সাচিলাপুর উত্তরপাড়া গ্রামে শনিবার সকালে পুকুরে ডুবে নাসিম শেখ (৪) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শিশু নাসিম সাচিলাপুর গ্রামের হালিম শেখের ছেলে। শিশুটির মা নুরুন্নাহার জানান, শনিবার সকালে ছেলে বাড়ির পাশের পুকুর পাড়ে যায়। দীর্ঘ সময় ধরে ফিরে না আসায় খুঁজতে গিয়ে পুকুরের পানিতে ডুবন্ত অবস্থায় তাকে পাওয়া যায়। দ্রুত উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, নাগেশ্বরীতে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে রিপন আলী (২৩) নামে এক যুবক মারা গেছেন। তিনি পৌরসভার মনিরচর এলাকার খতিবর আলীর ছেলে।

আরও পড়ুন: ভাড়ানী খালে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

পরিবার ও এলাকাবাসীরা জানায়, শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় রিপন দয়াময়ী পাইলট একাডেমীর পুকুরে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে যায়। কিছুক্ষণ পর ভেসে ওঠে। পরে এলাকাবাসী সেখান থেকে উদ্ধার করে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপরদিকে আমাদের ডুমুরিয়া (খুলনা) সংবাদদাতা জানান, নিজের মৎস্য ঘেরে বিদ্যুতের অবৈধ লাইনে সংযোগ দিতে গিয়ে কিনে দে (৪৫) নামের এক কৃষক বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা গেছেন। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার গোনালি গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি গোনালি গ্রামের শিবপদ দে’র ছেলে । এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু দায়ের করা হয়েছে।

গুরুদাসপুর (নাটোর) সংবাদদাতা জানান, গুরুদাসপুর পৌর শহরের আনন্দনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের কাজ করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আসাদ (৩৫) নামের এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল নয়টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

আসাদের বাড়ি নাটোর সড়র উপজেলার বনবেলঘড়িয়া গ্রামে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে শ্রমিকের কাজ করছিলেন। বেশ কয়েকজন শ্রমিক জানান, সকালে বিদ্যালয় ভবনের দ্বিতলে তিনি পলেস্তরার কাজ করছিলেন। এ সময় অসাবধানতা বসত তার হাতের থাকা লোহার নির্মাণ সামগ্রী পাশের বৈদ্যুতিক লাইন স্পর্শ করে। এ সময় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতাল নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

অপরদিকে আমাদের শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার অলিপুরে দ্রুতগামী ট্রাকের চাপায় আজাদ মিয়া (২৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলার অলিপুর নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আজাদ মিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর থানার বারগিরা গ্রামের মোহন মিয়ার পুত্র। তিনি হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের প্রাণ কোম্পানির শ্রমিক।

জানা যায়, নিহত আজাদ মিয়া তার কর্মস্থল আরএফএলের ফ্যাক্টরিতে যাওয়ার পথে একটি দ্রুতগামী ট্রাক চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত হয়। খবর পেয়ে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করে।

নগরকান্দা (ফরিদপুর) সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরের নগরকান্দায় বাসের চাপায় মা- ছেলের নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। শনিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়কের উপজেলার তালমার মোড়ে এ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো, রেশমা বেগম (৩০) ও তার শিশু ছেলে রনি (১২)। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে প্রতিবন্ধী ভিক্ষুক আবুল হেসেনের (৪০) অবস্থা আশংকাজনক। নগরকান্দা ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার আতিকুর রহমান নিহতের খবর নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, মুকসুদপুর থেকে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা আর. কে পরিবহন বাসটি তালমার মোড় অতিক্রম করার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে অপেক্ষমাণ যাত্রীদের চাপা দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে উপজেলার বারখাদিয়া গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের স্ত্রী রেশমা বেগম ও তার পুত্র রনি নিহত হয়। বাসটি আটক করা হলেও চালক পালিয়ে যায়।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা জানান, ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে শনিবার দুপুরে দীঘা ভাটিপাড়া গ্রামে সুতিয়া নদীতে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে ২য় শ্রেণির ছাত্রী আকলিমা আক্তার (১০) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, পাশের ভালুকা উপজেলার বর্তা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুছের মেয়ে আকলিমা আক্তার গত মঙ্গলবার গফরগাঁও উপজেলার দীঘা ভাটিপাড়া গ্রামের নানাবাড়িতে বেড়াতে আসে। শনিবার দুপুর ১টার দিকে নানাবাড়ির কাছে সুতিয়া নদীতে গোসল করতে নামে আকলিমা ও তার অপর দুই সাথী মিলি (৭) ও জুনাকি (৬)। এ সময় নদীর স্রোতের টানে পানিতে তলিয়ে যায় আকলিমা, মিলি ও জোনাকি। এলাকাবাসী দেখতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে মিলি ও জোনাকীকে উদ্ধার করতে পারলেও আকলিমাকে উদ্ধার করতে পারেনি। খবর পেয়ে বিকাল ৫টার দিকে ময়মনসিংহ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সুতিয়া নদী থেকে আকলিমার লাশ উদ্ধার করে।

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের অনন্তগোলাম আলীপুর গ্রামে শনিবার আড়াই বছরের শিশু ইউসুফ আলী বাড়ির পুকুরের পানিতে ডুবে মারা গেছে। ইউসুফ অনন্তগোলাম আলীপুর গ্রামের আনোয়ার মিয়ার ছেলে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, শনিবার দুপুরে শিশু ইউসুফ আলী পরিবারের লোকজনের অগোচরে বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে পড়ে নিখোঁজ হয়। পরে বিকেলে বাড়ির পুকুরের পানি থেকে ইউসুফ আলীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন