এফএটিএফ-র বৈঠকে ২৬/১১ মুম্বাই হামলা প্রসঙ্গ, চাপে পাকিস্তান

এফএটিএফ-র বৈঠকে ২৬/১১ মুম্বাই হামলা প্রসঙ্গ, চাপে পাকিস্তান
ছবি সংগৃহীত

ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ) এর এশিয়া-প্যাসিফিক যৌথ গ্রুপের (এপিজেজি) গত সপ্তাহের বৈঠকে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও অর্থ পাচারের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদের গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়েছে।

এফএটিএফ পূর্ণাঙ্গ অধিবেশন হিসাবে আগামী ২১-২৩ অক্টোবর বৈঠকে পাকিস্তানের 'ধূসর' তালিকায় থাকা নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্তের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

বৈঠকে ২৬/১১ মুম্বাই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদ কী পদক্ষেপ নিয়েছে তা তদন্তের অধীনে থাকবে। পাকিস্তানকে দেওয়া ২৭ টি শর্তের মধ্যে রয়েছে এটি।

গত সপ্তাহে (এফএটিএফ) এর এশিয়া-প্যাসিফিক যৌথ গ্রুপ সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও অর্থ পাচারের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদ কী পদক্ষেপ নিয়েছে তা নিয়ে পর্যালোচনা করেছে। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, চীন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, এবং জাপানকে নিয়ে তৈরি ঐ গ্রুপ গত বছর পাকিস্তানকে ধুসর তালিকায় রাখার প্রস্তাব দেয়।

সুত্র জানিয়েছে, পাকিস্তানকে যে ২৭ টি শর্ত দেওয়া হয়েছে এর মধ্যে পাকিস্তান 'কিছুটা অগ্রগতি' করেছে। কিন্তু সম্ভবত পাকিস্তান ধুসর তালিকায় থেকে যাবে।

সুত্র আরো জানিয়েছে, পাকিস্তানকে আর 'কালো' তালিকাভুক্ত করা সম্ভব নয়, কেননা কিছু দেশ যার মধ্যে চীনও রয়েছে যারা পাকিস্তানের 'সমর্থনে' আছে।

গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তানে চীনের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত ইয়াও শিং বলেছেন, অক্টোবরে এফএটিএফ-এর বৈঠক পাকিস্তানের জন্য 'ভালো' হবে।

পরবর্তীতে রবিবার দেশটির শিল্প ও উত্পাদন মন্ত্রী হামাদ আজহার বলেন, তিনি 'আশাবাদী' আশাবাদী পাকিস্তান শিগগিরই ধূসর তালিকা থেকে মুক্তি পাবে। দি হিন্দু

ইত্তেফাক/এসআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত