ঢাকা বুধবার, ২২ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩৫ °সে


জরুরি অবস্থা জারি

আইনি চ্যালেঞ্জের মুখে ট্রাম্প

আইনি চ্যালেঞ্জের মুখে ট্রাম্প
ডোনাল্ড ট্রাম্প

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে অর্থ বরাদ্দের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করে প্রবল আইনি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে চলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইতিমধ্যে টেক্সাসে এই দেয়াল নির্মাণের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তিনজন জমির মালিক এবং একটি পরিবেশবাদী সংগঠন।

মামলাটি করা হয়েছে, ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়ার ফেডারেল আদালতে। নিউ ইয়র্ক পোস্টের এক খবরে বলা হয়েছে, ডেমোক্র্যাটিক আইনপ্রণেতা, রাজ্য এবং উদারপন্থীরাও মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।গত শুক্রবার মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এর ফলে কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে সামরিক খাতের নির্মাণ প্রকল্পের ৩৬০ কোটি ডলার, মাদকবিরোধী প্রকল্পের ২৫০ কোটি ডলার এবং ট্রেজারি বিভাগের ৬০ কোটি ডলার দেয়াল নির্মাণ প্রকল্পে বরাদ্দ দিতে পারবেন ট্রাম্প। এর সঙ্গে যোগ হবে কংগ্রেসের পাস করা ১৩৭ দশমিক ৫ কোটি ডলারের প্যাকেজও।

তবে বিরোধী ডেমোক্র্যাটরা এই পদক্ষেপকে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার সর্বোচ্চ অপব্যবহার বলে মন্তব্য করেছে। ইতিমধ্যে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের বিচার বিভাগীয় কমিটি জানিয়েছে, জরুরি অবস্থা ঘোষণার নিয়ে একটি তদন্ত শুরু করেছেন তারা। হাউসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি একটি তালিকা প্রকাশ করেছেন। ট্রাম্প বিভিন্ন খাত থেকে অর্থ সরিয়ে নিলে কোন কোন প্রকল্প ক্ষতিগ্রস্ত হবে সেটাই তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে তিনি জরুরি অবস্থার বিরুদ্ধে রিপাবলিকান আইনপ্রণেতাদের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করছেন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্যাট্রিক শানাহান জানিয়েছেন, সীমান্ত দেয়ালের জন্য কি পরিমাণ অর্থ পেন্টাগণ থেকে নেওয়া হবে সে বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

ফক্স নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আইনি চ্যালেঞ্জের পাশাপাশি রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জের মুখেও পড়তে হচ্ছে ট্রাম্পকে। উদারপন্থী মানবাধিকার কর্মীরা আজ সোমবার যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করার পরিকল্পনা করছে। এ লক্ষ্যে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চলছে। যুক্তরাষ্ট্রে কেন্দ্রীয় ছুটির দিন প্রেসিডেন্স ডে’তে এই বিক্ষোভ হবে। আয়োজকরা বলছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভুয়া সংকটের বিরুদ্ধে এবং অভিবাসী, মুসলিম, কৃষ্ণাঙ্গ ও অন্য সম্প্রদায়ের লোকদের পক্ষে এই সমাবেশ হবে।

আরও পড়ুন: জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় ‘সদিচ্ছা’ প্রদর্শনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ট্রাম্প আইনি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়লেও ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক পিটার শেনের মতে, এতে তেমন কোনো লাভ হবে না। এর আগে সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলেন ট্রাম্প। নিম্ন আদালত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিপক্ষে রায় দিলেও সুপ্রিম কোর্ট নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখেছিল। এবারও তাই হবে। কারণ সুপ্রিম কোর্টে রক্ষণশীল বিচারকরা সংখ্যাগরিষ্ঠ।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন