ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬
২১ °সে

‘আফিমখোর’ পাখিদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ চাষীরা

‘আফিমখোর’ পাখিদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ চাষীরা
একটি পপি ফুল থেকে ২০-২৫ গ্রাম আফিম হয়। ছবি: সংগৃহীত।

‘মাদকাসক্ত’ টিয়া পাখিদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ ভারতীয় কৃষকেরা। কৃষকদের অভিযোগ, ‘আফিমখোর’ টিয়া পাখিরা তাদের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি করছে। খবর বিবিসির।

ভারতের মধ্যপ্রদেশের আফিম চাষীরা বলেছেন, অনাবৃষ্টির পর তাদের ফসলের মাঠে টিয়া পাখিদের এমন অত্যাচারে ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে।

কৃষকেরা আরো জানান, পাখিদের তাড়াতে যে লাউড স্পিকার বাজিয়ে ভয় দেখানো হত তাতে এখন আর কাজ হচ্ছে না। পাখিরা এতে আর ভয় পাচ্ছে না।

ওই এলাকার কৃষকদের অভিযোগ, এমন অবস্থায় কোন কর্তৃপক্ষ তাদের সাহায্যের হাত বাড়ায়নি। এই মৌসুমে টিয়া পাখিদের অত্যাচারের কারণে তাদের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হবে বলে আশঙ্কা করছেন কৃষকেরা।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, টিয়া পাখিগুলো কৃষকদের পপি ফুল নিয়ে উড়ে যাচ্ছে।

মধ্য প্রদেশের এসব কৃষক ওষুধ তৈরিকারী একটি প্রতিষ্ঠানের কাছে তাদের ফসল সরবরাহ করে। এছাড়া তাদের আফিম চাষের লাইসেন্সও রয়েছে।

আফিম চাষ করেন এমন এক কৃষক সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভিকে জানান, তীব্র শব্দ করে বা মশাল জ্বালিয়েও পাখিদের নিবৃত্ত করা সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, একটি পপি ফুল থেকে ২০-২৫ গ্রাম আফিম হয়। কিন্তু বড় এক দল টিয়া পাখি দিনে ৩০-৪০ বার এইসব গাছ থেকে ফুল খেয়ে যায়। এছাড়া অনেক পাখি পপি ফুলের কলিও নিয়ে যায় বলে জানান কৃষকেরা।

ভারতের মান্দসাওরের হর্টিকালচার কলেজের আর এস চুন্দাওয়াত ডেইলিমেইলকে জানান, আফিম খাওয়ার পর পাখিগুলোকে তাৎক্ষণিক শক্তি দেয়, ঠিক যেমনটি মানুষের ক্ষেত্রে ঘটে চা বা কফি খাওয়ার পর।

আরো পড়ুন: উত্তর কোরিয়ায় ব্যাপক খাদ্য সংকটের আশঙ্কা

মি. চুন্দাওয়াত আরো বলেন, একবার পাখিরা এই অনুভূতি পাওয়ার পর খুব দ্রুত আসক্ত হয়ে পড়ে।

ইত্তেফাক/এসআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন