ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২১ °সে


জঙ্গি অর্থায়ন বন্ধে পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিতে যাচ্ছে এফটিএফ

জঙ্গি অর্থায়ন বন্ধে পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিতে যাচ্ছে এফটিএফ
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি-সংগৃহীত

জঙ্গিদের অর্থসাহায্য বন্ধ করার জন্য আরো চাপের মুখে পড়তে চলেছে পাকিস্তান। এ ব্যাপারে যারা নজরদারি চালায়, সেই আন্তর্জাতিক সংগঠন ‘ফাইনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ)’ এবার চরম হুঁশিয়ারি দিতে চলেছে ইসলামাবাদকে। এটাই পাকিস্তানের শেষ সুযোগ, অন্যথায় দেশটির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিকভাবে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হতে পারে বলে সংস্থাটির এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এফএটিএফ-এর ঐ পদস্থ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জঙ্গিদের অর্থসাহায্য বন্ধের ব্যাপারে ইসলামাবাদ কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ দাখিল করতে পারেনি। এ কারণে দেশটিকে ‘আরো বেশি ধূসর’ দেশগুলোর তালিকাভুক্ত করা হতে পারে। আগামী অক্টোবরে এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা আসবে বলে তিনি জানিয়েছেন। এফএটিএফ-এর ‘প্লেনারি সেশন’ এখন প্যারিসে চলছে।

আরো পড়ুন : ঐতিহাসিক বাহাদুর শাহ পার্ক সংস্কারে ধীরগতি

সেখানেই আন্তর্জাতিক সংগঠনটির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ইসলামাবাদকে একটি সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল পাকিস্তান যে সন্ত্রাসবাদীদের অর্থসাহায্য দেওয়া বন্ধ করেছে, তার যাবতীয় সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ ঐ সময়ের মধ্যে দাখিল করতে হবে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকার এখনো পর্যন্ত কোনো প্রমাণ দাখিল করতে পারেনি। ফলে, পাকিস্তানকে শেষ হুঁশিয়ারি দেওয়ার প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে।

গত বছরের জুন থেকেই পাকিস্তানকে ‘ধূসর তালিকা’য় রেখেছে এফএটিএফ। প্রমাণ দাখিলের জন্য এফএটিএফ-এর তরফে ২৭টি শর্ত দেওয়া হয়েছিল। ১৯৮৯ সালে গঠিত আন্তর্জাতিক সংস্থার ঐ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ইমরান খানের সরকার তার মধ্যে এখনো পর্যন্ত ছয়টি শর্ত পূরণ করেছে। এফএটিএফ কোনো দেশকে ‘কালো তালিকা’য় ঢোকানোর আগে দুটি পর্যায়ের মধ্যে দিয়ে যায়। একটি ‘ধূসর’, অন্যটি ‘আরো বেশি ধূসর’। এ দুটি তালিকাভুক্ত করে এফএটিএফ-এর তরফে সংশ্লিষ্ট দেশকে দুইবার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। —আনন্দবাজার পত্রিকা

ইত্তেফাক/ইউবি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন