বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

গোমস্তাপুরে নিখোঁজের দুইদিন পর এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার

আপডেট : ১২ জুন ২০২১, ২২:১৮

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে নিখোঁজের দুদিন পর মহানন্দা নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় রইসউদ্দিন (৪০) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের কাশিয়াবাড়ীর দুর্গাপুর ঘাটসংলগ্ন মহানন্দা নদী থেকে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। মৃত রইসউদ্দিন উপজেলার বাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের চক ভবানীপুর দিয়াড় গ্রামের জবদুল হকের ছেলে।

মৃত রইসুদ্দিনের স্ত্রী তাজ্জিমা বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে তার স্বামীর নাম্বারে একটা ফোন আসে। খাওয়া-দাওয়া দ্রুত শেষ করেই তিনি বেরিয়ে যান। রাতে বাড়িতে ফিরে না আসায় এলাকায় তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করা হয়। কিন্তু তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। তবে ঐ দিন এলাকার দুজন আতিকুর ও রহমান তার সঙ্গে ফোনে কথা বলছিল বলে তিনি ধারণা করছেন।

এ ব্যাপারে গোমস্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলিপ কুমার দাস বলেন, শনিবার সকাল পৌনে ৯টার সময় বোয়ালিয়া ইউনিয়নের দুর্গাপুর এলাকার মহানন্দা নদীতে ভাসমান অবস্থায় এক ব্যক্তির মরদেহ দেখতে পায়। পরে স্থানীয়রা গোমস্তাপুর থানায় খবর দিলে পুলিশ ঐ স্থান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। এ সময় চক ভবানীপুর দিয়াড় গ্রামের তাইজুদ্দিন মরদেহটি তার ভাই রইসউদ্দিন বলে শনাক্ত করেন।

এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এমদাদুল ও মোস্তাকিম নামে দুজনকে গ্রেফতার করে। জিজ্ঞাসাবাদে দুজন জানায়, তারা পাঁচ জন মিলে ঐ দিন রাতে ভারতীয় সীমান্তে ফেনসিডিল আনতে যায়। ঐ সময় ভারতীয় সীমান্ত বাহিনী (বিএসএফ) তাড়া দিলে মহানন্দা নদীতে তারা সবাই ঝাঁপিয়ে পড়ে। চার জন নদীর কিনারায় উঠতে পারলেও রইসউদ্দনি পানিতে ডুবে যায়।

ওসি আরো জানান, মরদেহের শরীর অর্ধ গলিত, আঘাতের কোনো চিহ্ন বোঝা যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে ভিকটিমের পরিবার দাবি করছে, রইসউদ্দিনকে খুন করা হয়েছে। এ ঘটনায় বিকাল ৫টায় মুঠোফোনে ওসি জানান, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।