বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ঘোড়ায় গেলো বর, পালকিতে এলো বউ

আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০২১, ১৫:৫৫

ঘড়ির কাটায় তখন দুপুর দেড়টা। ভোলা শহরে হঠাৎ করেই দেখা গেলো  লাল শেরওয়ানি ও মাথায় লাল পাগড়ি পরে সুসজ্জিত ঘোড়ায় চড়ে চার বেহারার পালকি নিয়ে বর বেসে আনোয়ারুল আজিম যাচ্ছেন জীবন সঙ্গী প্রিয়তমাকে আনতে। কনের বাড়িতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে নিজে ঘোড়ায় চরে ও পালকিতে করে প্রিয়তমাকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি। বাংলার এ ঐতিহ্যবাহী  বিয়ের ঘটনা ঘটেছে ভোলা শহরের গাজীপুর রোড এলাকায়।

পালকি বসে আছেন কনে।

বর আনোয়ারুল আজিম ঢাকার আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে কর্মরত আছেন। তিনি ভোলা পৌরসভা ২নং ওয়ার্ড গাজীপুর রোড এলাকার আকবর হোসেনের ছেলে। তিনি সদর উপজেলার ছোট আলগী গ্রামের মো. লোকমান মিয়ার মেয়ে সুমাইয়া আক্তার ইরাকে বিয়ে করেন। উভয় পরিবারের সম্মতিতে বিলুপ্ত প্রায় গ্রামীণ সংস্কৃতিকে ধরে রাখতে ব্যতিক্রমী এ বিয়ের আয়োজন করেন তারা। আজিম ঘোড়ায় চড়ে সুসজ্জিত পালকি নিয়ে বিয়ে করতে যান।

সেলফি তুলছেন এক তরুণী।

এ বিষয়ে আজিম বলেন, পালকিটা মূলত গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যে। পালকিতে বিয়ের বিষয়টা আমি বাবা-মায়ের সঙ্গে শেয়ার করি। ভোলায় কোনো পালকি না থাকায় আমি হতাশ হই। পরে এলাকার এক কাঠের দোকানে যোগাযোগ করলে তারা পালকি বানিয়ে দেয়।  আজিম তাদের দাম্পত্য জীবন যেন সুখের হয় তার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

বিয়ে করতে যাচ্ছেন আজিম।

পালকির বেহারার মো. আমজাদ উদ্দিন বলেন, পালকি দেশের পুরাতন ঐতিহ্য। এক সময় বিয়েতে পালকির ব্যবহার হতো, এখন আর ব্যবহার হয় না। আগে আমরা এই পালকিতে কইরা বউ আনতাম-নিতাম। এখন আর বিয়ে কেউ পালকি নেয় না।

 

ইত্তেফাক/ইউবি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বউ আনতে হেলিকপ্টার ভাড়া

ঠাকুরগাঁওয়ে পাকুড়-বটের বিয়ে

বাবার ইচ্ছাপূরণে বর এলেন পালকিতে

সরকারি সহায়তা পেতে নিজ বোনকে বিয়ে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বট গাছের বিয়ে 

৩৩ ইঞ্চির শাম্মিকে বিয়ে করলেন ৪৪ ইঞ্চির আল আমিন

এক মাস ধরে কেঁদে বিয়ে? দেশে দেশে বিয়ের যত অদ্ভুত রীতি

গরুকে বিয়ে করে সংসার করছেন তিনি