মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

প্রচারেই প্রসার বটে, তবে তাহা প্রলয় ঠেকাইবে কি?

আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:১৮

ব্যবসায়-বাণিজ্য, মার্কেটিং হইতে শুরু করিয়া যে কোনো প্রকারের প্রচারণার বেলায় যে বাক্যটি বহুল চর্চিত তাহা হইল—প্রচারেই প্রসার। অর্থাৎ যে যত অধিক প্রচার করিবেন তাহার প্রসারও তত বাড়িয়া যাইবে। ব্যবসায়-বাণিজ্য, মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে ইহা অনিবার্য সত্য। তবে আজকের দিনে আসিয়া ‘প্রচারেই প্রসার’ শব্দদ্বয়কে অনন্য উচ্চতায় লইয়া গিয়াছে উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলি। বৈশ্বিক সংকট, অর্থনৈতিক মন্দা কিংবা যে কোনো দুর্যোগ দুর্বিপাকের মধ্যেও উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলি নিজেদের অর্জন, অর্থনৈতিক সক্ষমতা ইত্যাদির বিষয়ে এমনভাবে প্রচার-প্রচারণা চালাইয়া থাকে যে, কোনোভাবেই বুঝিবার উপায় থাকে না বিশ্ব একটি ভয়াবহ সংকটের মধ্য দিয়া যাইতেছে এবং তাহারাও সেই ঝুঁকির ঊর্ধ্বে নহে। বলাই বাহুল্য, প্রচার করিবার, লোক দেখাইবার এই সংস্কৃতি উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলিতে মারাত্মক আকার ধারণ করিয়াছে।

ইহা অস্বীকার করিবার উপায় নাই, নিজেদের প্রচার করিবার সংস্কৃতি উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলিতে বহু পূর্ব হইতেই চলিয়া আসিতেছে। লক্ষণীয় বিষয় হইল, বিশ্ব যখন কোনো সংকটে পতিত হয় তখন উন্নত বিশ্বের দেশগুলি সেই সংকট-সমস্যাকে স্বীকার করিয়া লয়। ইহার পাশাপাশি সেই সকল সংকট-সমস্যাকে মোকাবিলা করিবার লক্ষ্যে তাহারা প্রতিনিয়ত আলোচনা অব্যাহত রাখে। বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে সমগ্র বিশ্বই সামাজিক, অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিকভাবে সংকটের সম্মুখীন হইয়াছে। বিশেষ করিয়া করোনাকে কেন্দ্র করিয়া বিশ্বে যে অর্থনৈতিক মহামন্দার আশঙ্কা দেখা দিয়াছে তাহা সমগ্র বিশ্বকেই ভাবাইয়া তুলিয়াছে। উন্নত বিশ্বের দেশগুলি নিজ নিজ দেশের অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবিলা করিবার জন্য প্রতিনিয়ত নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করিতেছে। করোনার অভিঘাতে বেকার সমস্যা, উত্পাদনে স্থবিরতা, মুদ্রাস্ফীতি ইত্যাদি সমস্যা সমাধানে তাহারা নূতন নূতন প্রণোদনার ব্যবস্থা করিতেছে। একই সঙ্গে করোনা মোকাবিলা এবং অর্থনীতির চাকাকে গতিশীল রাখিবার জন্য তাহাদের যে গলদঘর্ম হইতেছে, তাহা বলিবার অপেক্ষা রাখে না। মোদ্দা কথা হইল, তাহারা সমস্যাকে চিহ্নিত করিয়া লইয়া সেই সমস্যার ব্যাপারে আলোচনা করিয়া থাকে। 

অন্যদিকে উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলিকে দেখিলে মনে হয় তাহাদের হাতে যেন ম্যাজিক রহিয়াছে; তাহারা যেন আলাদিনের আশ্চর্য প্রদীপ হাতে লইয়া বসিয়া রহিয়াছে, যাহার কারণে বৈশ্বিক কোনো সমস্যা-সংকট তাহাদের স্পর্শ করিতে পারিতেছে না। সমগ্র বিশ্ব যেইখানে অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলা করিতে হিমশিম খাইয়া যাইতেছে, উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলি সেইখানে নিজেদের অর্জন, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ইত্যাদি ফলাও করিয়া প্রচার করিতেছে। যদিও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা কখনো কখনো উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলির এই অর্থনৈতিক অর্জনের সহিত দ্বিমত পোষণ করিয়া থাকে, তাহার পরও এই সকল দেশের প্রচার প্রচারণার কোনো কমতি থাকে না। বাস্তব পরিস্থিতিকে উপেক্ষা করিয়া এইরূপ প্রচার-প্রচারণা নিঃসন্দেহে তাহাদের অদূরদর্শিতারই প্রমাণ দেয়। উন্নত বিশ্বের দেশগুলি বর্তমান সংকট মোকাবিলার পাশাপাশি অদূর ভবিষ্যতে বিশ্ব যে ভয়াবহ সংকটে পতিত হইতে পারে সেই ব্যাপারেও সচেতনতার সহিত পদক্ষেপ গ্রহণ করিতেছে। করোনা ভাইরাসের নূতন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন লইয়াও তাহারা নড়িয়া চড়িয়া বসিয়াছে, কী করিয়া বিপর্যয় সামাল দেওয়া যায় তাহা লইয়া ভাবিতেছে। অথচ উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলি একদিকে যেমন বর্তমান সংকট-সমস্যার বিষয়ে আলোচনা করিতেছে না, অন্যদিকে ভবিষ্যতে যেই নিদারুণ সংকট আসিয়া উপস্থিত হইবে, সেই ব্যাপারেও রহিয়াছে উদাসীন। তাহাদের মূল সমস্যাটি হইল—তাহারা বৈশ্বিক সমস্যা-সংকটকে স্বীকার করিয়া লইতে চাহেন না, আলোচনা এবং বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ গ্রহণের বিষয়টি তো বহু দূরের কথা।

উন্নয়নশীল বিশ্বের যাহারা নীতিনির্ধারক রহিয়াছেন তাহাদের মনে রাখিতে হইবে, বাস্তব পরিস্থিতিকে উপেক্ষা করিয়া বৈশ্বিক সংকটে টিকিয়া থাকা যায় না। সমগ্র বিশ্ব যেইখানে অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের টালমাটাল, আজ হউক কিংবা কাল হউক সেই বিপর্যয়ের ঢেউ আসিয়া তাহাদের উপরেও পড়িবে। বলা হইয়া থাকে, রোম যখন পুড়িতেছিল, সম্রাট নিরো তখন বাঁশি বাজাইতেছিলেন। অর্থাৎ বাস্তবতা লইয়া তিনি সচেতন ছিলেন না। সুতরাং উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলিকে বাস্তব পরিস্থিতি লইয়া উদাসীন থাকিলে চলিবে না, বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় সতর্কতা ও সচেতনতার সহিত পদক্ষেপ গ্রহণ করিতে হইবে। অন্ধ থাকিলে প্রলয় বন্ধ থাকিবে না। 

 

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

জন্মনিবন্ধন সনদ তৈরির সকল ভোগান্তি দূর হউক

ধন্য তাহার জীবন

আছে খরার আঘাতও

‘অসময়ে হায় হায় কেউ কারো নয়’

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

‘অসময়ে হায় হায় কেউ কারো নয়’

এই আচরণের ব্যত্যয় ঘটাইতে হইবে

টিকিয়া থাকিতে চাওয়া মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি

পবিত্র আশুরা: অন্যায়ের বিরুদ্ধে ন্যায়ের চেতনা