বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আরজে কিবরিয়ার 'আপন ঠিকানা’

আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৫৭

ত্রিশ বছর পর হারানো মেয়েকে কাছে পেয়ে আনন্দে অশ্রুসিক্ত হলেন বয়োবৃদ্ধ হাজিফা। মা-মেয়ে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে কাঁদছেন; এ কান্নার মাধ্যমে যেন প্রকাশ করছেন ত্রিশ বছরের জমিয়ে রাখা আদার-ভালোবাসা ও মান-অভিমান। একজন ট্রান্সজেন্ডার এইচএসসির পর আর পড়াশোনা করতে পারেননি, কিন্তু সময় পালাবদলে বিশ হাজার টাকা দিয়ে ব্যবসা শুরু করে আজ ব্যবসা শুরুর সাত বছরে সাততলা গার্মেন্টের মালিক; অকপটে জানাচ্ছেন তাঁর জীবন সংগ্রাম ও সাফল্যের কথা। অভাবের তাড়নায় সন্তানের খাবার জোগাড় করতে মানুষের বাসাবাড়িতে কাজ করেছেন যে মা, আজ সে মায়ের সন্তান শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর একটিতে পড়ে—এ ধরনের গল্পগুলো প্রায়ই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিউজফিডজুড়ে ঘুরে বেড়ায়।

এমন অনেক গল্প সবার কাছে পৌঁছে দেয়াড় নেপথ্য কারিগর যিনি, তিনি উপস্থাপক ও উদ্যোক্তা মো. গোলাম কিবরিয়া সরকার। আরজে কিবরিয়া নামেই তিনি জনপ্রিয়। হারানো স্বজনকে পরিবারের আপন ঠিকানায় পৌঁছে দিতে, জিরো থেকে হিরো হওয়া বা মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে ত্যাগ-তিতিক্ষ্যার মাধ্যমে সফল হওয়া ব্যক্তিদের গল্প সাড়া দেশে পৌঁছে দিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার ভিডিও দেখছেন লাখ লাখ মানুষ।

কিবরিয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পাবলিক প্রশাসন বিভাগে থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে রেডিও জকি হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। টানা ১৬ বছর ধরে রেডিও-তে কাজ করে যাচ্ছেন বিভিন্ন অনুষ্ঠানের উপস্থাপক হিসেবে। শুরুর দিকে ২০০৬ সালে রেডিও টুডে-তে ‘কথা বন্ধু’ এপিসোডে কাজ শুরু করেন। এরপর একে একে জীবনের গল্প, সিক্রেটস, হ্যালো ৮৯২০, যাহা বলিব সত্য বলিব, লস্ট এন্ড ফাউন্ডসহ বেশ কয়েকটি জীবনধর্মী অনুষ্ঠানে উপস্থাপন করেছেন। শুদ্ধ ও সাবলীল বাচনভঙ্গি, জীবনঘনিষ্ঠ অনুষ্ঠান হওয়া আর চমৎকার উপস্থাপনের কারণে অল্প সময়েই প্রতিটি অনুষ্ঠানই শ্রোতাদের কাছে জনপ্রিয় হয়েছে।

গত বছর ফেব্রুয়ারিতে করোনা মহামারি সময় গড়ে তোলেন সোশ্যাল মিডিয়াকেন্দ্রিক স্টার্টআপ ‘স্টুডিও অফ ক্রিয়েটিভ আর্টস লিমিটেড’। প্রাথমিকভাবে প্রতিষ্ঠানটি তিনটি প্রজেক্ট নিয়ে কাজ শুরু করেন। যার মধ্যে রয়েছে হারানো স্বজন খুঁজে পেতে এবং উপযুক্ত তথ্য ও প্রমাণের ভিত্তিতে পরিবারের কাছে হারানো স্বজনকে তুলে দিতে ‘আপন ঠিকানা’, 'ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ’ ও আশপাশে ছড়িয়ে থাকা অসংখ্য জীবন গল্পের শিক্ষামূলক কিংবা অনুপ্রেরণামূলক গল্পগুলো ছড়িয়ে দিতে ‘লাইফ’।

স্টুডিও অব ক্রিয়েটিভ আর্টসের কার্যক্রম নিয়ে আরজে কিবরিয়া বলেন, ‘নীলক্ষেত কিংবা আশপাশের বইয়ের দোকান থেকে আমরা একশ জন সফল ব্যক্তির জীবনী কিনে পড়ি নিজেরা সফল হতে, অথচ সে মানুষগুলো আমাদের ধরা ছোঁয়ার বাইরে! কিন্তু আমাদের আশপাশে, সমাজে অসংখ্য স্ট্রাগল করে বেড়ে ওঠা সফল ব্যক্তি রয়েছেন যাদেরকে আমরা চিনি না, যাদের গল্প পড়ি না। সে গল্পগুলো জানাতে ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ। আর আমি দীর্ঘসময় রেডিওতে লস্ট এন্ড ফাউন্ড উপস্থাপন করেছি, সেখানে অনেকে হারানো স্বজনের কথা বলতেন। শ্রোতাদের মাধ্যমে অনেকে খুঁজে পেতেন নিজের  ঠিকানা, সে-কাজ থেকেই এ চিন্তাধারা।

নাসিমা নামের এক মেয়ে তার মাকে খুঁজে পাওয়ার মাধ্যমে ৬ ফেব্রুয়ারিকে আপন ঠিকানা প্রজেক্টের যাত্রা। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত ১৭০টি এপিসোডের মধ্যে ১১০টির কেস সফল হয়েছে, পরিবার থেকে হারিয়ে যাওয়া ব্যক্তি খুঁজে পেয়েছেন তাদের আপনজন। কিবরিয়া জানান,  ‘আপন ঠিকানা শুরুর দিকে অডিয়েন্স কম থাকায় হয়তো দশটার মধ্যে তিন-চারটা সফল হতো, এখন সেটা সাত-আটটায় পৌঁছে এছে। এর পেছনে অবশ্যই বলব, দর্শক শ্রোতাদের ভূমিকা রয়েছে, যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারের মাধ্যমে হারানো স্বজনকে খুঁজে পেতে সাহায্য করছেন।’ লাখ লাখ দর্শকদের কাছে জনপ্রিয়তা পাওয়া ‘আপন ঠিকানা’ এখন যেন হারানো স্বজনকে নীড়ে ফেরানোর এক সবুজ অধ্যায় আর সাধারণ মানুষের ভালোবাসার উপাখ্যান।

বর্তমানে স্টুডিও অফ ক্রিয়েটিভ আর্টসের তিনটি প্রজেক্ট উপস্থাপনার পাশাপাশি বেসরকারি টেলিভিশন মাছরাঙাতে ‘রাঙা সকাল’ ও ঢাকা এফএম-এ ‘জীবন গল্প’ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করে যাচ্ছেন কিবরিয়া। ভবিষ্যতেও মানবিকতা আর সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে মানবিক কাজগুলো চালিয়ে যেতে চান তিনি।

 

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ব্রিটেনের রানির পুরস্কার পেলেন বিদ্যানন্দের কিশোর

মেডিকেলে ৫০তম ইভা, ডেন্টালেও প্রথম

নাদিয়ার সাহসী উদ্যোগ

বাকৃবিতে ‘আলোকসরণির’ ভিন্নধর্মী কার্যক্রম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

হাত রাঙানোই নুসরাতের স্বপ্নের পেশা

সেই সব বইপ্রেমীদের গল্প

ককপিটের গল্প শোনান ক্যাপ্টেন আব্দুল্লাহ

দ্রুততম বীজ-অঙ্কুরোদগম পদ্ধতি আবিষ্কার করলেন দুই কলেজছাত্র