শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের দুই অ্যাম্বুলেন্সই বিকল

আপডেট : ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:৪৯

নীলফামারীর সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের বিকল অ্যাম্বুলেন্স দুটি মেরামতের কোনো উদ্যোগ নেই। ফলে রোগীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। প্রায় কয়েক লাখ মানুষের চিকিৎসাসেবায় ব্যবহৃত দুইটি অ্যাম্বুলেন্সই যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে অযত্ন-অবহেলায় পড়ে আছে। এতে বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস নিতে হচ্ছে। সবচেয়ে অসুবিধায় পড়েছে দুস্থ অসহায় দরিদ্র রোগীরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালে কেনা অ্যাম্বুলেন্সটির ইঞ্জিন নষ্ট হয়। আর ২০১৬ সালে কেনা অন্য অ্যাম্বুলেন্সের পাম্পে সমস্যা ও টায়ার নষ্ট। বিকল অ্যাম্বুলেন্স দুইটি হাসপাতালের গ্যারেজে ফেলে রাখা হয়েছে।

সরকারি অ্যাম্বুলেন্স চালক মো. সোহেল আহমেদ জানান, প্রতিদিনই ৫-১০ জন রোগীকে জরুরি প্রয়োজনে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ বা দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজে পাঠাতে হয়। রংপুর-দিনাজপুর রোগী পরিবহনে আমাদের ভাড়া ৯০০ টাকা। আর বেসরকারিগুলো ১ হাজার ২০০ থেকে দেড় হাজার টাকা নেয়। এতে রোগীদের বাড়তি খরচ করতে হয়। সরকারি অ্যাম্বুলেন্স পড়ে থাকায় জনগণকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে সৈয়দপুর ১০০ শয্যার হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. নবিউর রহমান বলেন, অ্যাম্বুলেন্স দুইটি চার-পাঁচ মাস হলো বিকল হয়েছে। মেরামতের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। বাজেট পেলেই ঠিক করা হবে। তবে কবেনাগাদ অর্থ বরাদ্দ পাওয়া যাবে সে ব্যাপারে তিনি সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারেননি।

ইত্তেফাক/ ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

কিশোরগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস খাদে

নীলফামারীতে ভালো ফলনেও লোকসানে কৃষক  

কিশোরগঞ্জে নদীর চরে চিনাবাদামের চাষ 

সৈয়দপুরে নেই দুগ্ধ শীতলীকরণ কেন্দ্র, লোকসানে খামারিরা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সৈয়দপুরে টিকটক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু

নীলফামারীতে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষক বরখাস্ত

সৈয়দপুরে ঝড়বৃষ্টির শঙ্কায় বোরো ধান কাটা শুরু

সৈয়দপুরে সুন্দরী আম মন কাড়ছে সবার