শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ছাত্র নয়, স্কুলে মারাপিট করলেন প্রধান শিক্ষক ও ভূগোল শিক্ষক

আপডেট : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১২:৪৫

ভারতে এক স্কুলে মারামারিতে জড়িয়ে পড়লেন প্রধান শিক্ষক এবং ভূগোলের শিক্ষক। বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম্বঙ্গের নদিয়ার কৃষ্ণনগরের কলেজিয়েট স্কুলে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

স্কুল-কলেজগুলোতে সাধারণত ছাত্রদের মধ্যে মারামারি বা হাতাহাতির ঘটনা দেখা যায়। কিন্তু শিক্ষকদের মধ্যে মারামারির ঘটনা তেমন একটা দেখা যায়না। কৃষ্ণনগরের কলেজিয়েট স্কুলের ঘটনায় রীতিমতো হতবাক অভিভাবক থেকে শিক্ষার্থীরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আজ বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলছে পশ্চিমবঙ্গে। ঠিক এর আগেরদিন স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও ভূগোল শিক্ষকের মারামারির ঘটনা এখন সবার আলোচনার বিষয়।

ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মনোরঞ্জন বিশ্বাস দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ করে আসছেন অন্যান্য শিক্ষকরা। এমনকি প্রতিবাদ করতে গেলেই তাদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি দেখান মনোরঞ্জন বিশ্বাস। শুধু তাই নয়, শিক্ষকদের কাগজপত্র আটকে রাখা হয় বলেও অভিযোগ আছে। প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মুখ খুললে বদলি করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয় বলেও জানান অনেকে।

বুধবার ওই স্কুলের ভূগোলের শিক্ষক নিমাই মজুমদার তার কিছু প্রয়োজনীয় কাগজ দীর্ঘদিন ধরে আটকে রাখার অভিযোগ তোলেন। প্রধান শিক্ষকের কাছে চেয়েও সেই কাগজপত্র কিছুতেই ফেরত পাচ্ছিলেন না। তারই প্রতিবাদ করে পোস্টার নিয়ে প্রধান শিক্ষকের অফিসের সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ বসে পড়েন ওই শিক্ষক।

সেই সময় প্রধান শিক্ষক ওই প্রতিবাদী শিক্ষকের ওপর চড়াও হন। দুই শিক্ষকের মধ্যে ব্যাপক মারামারি, চড়-ঘুষিও চলতে থাকে। গণমাধ্যমের সামনেই মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন তারা। দুইজনকে কোনো রকমে আটকানো হয়।

ভূগোলের শিক্ষক দাবি করেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই এই প্রধান শিক্ষক বিভিন্ন দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত। এর আগেও নানা রকম অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। প্রতিবাদ করলেই বিভিন্নভাবে হুমকি দেওয়া হয়।’

যদিও তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মনোরঞ্জন বিশ্বাস। পাল্টা তার বক্তব্য, ‘কেউ বলতে পারবে না আমি কোনো কাগজপত্র আটকেছি। ওই শিক্ষকের দাবি কী আমি জানি না। আমি কাউকে কোনোদিন হুমকি দিইনি। আমার সঙ্গে অসভ্য আচরণ করা হয়েছে’

 

ইত্তেফাক/টিআর