শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

লড়াইটা তাদেরও 

আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০৫:৩৬

সেরা স্থানীয় কোচদের তালিকা করলে তারাই সবার ওপরে আসবেন। আজ অনুষ্ঠেয় বিপিএলের ফাইনাল যেন সেটাই আরো এক বার বুঝিয়ে দিল। মাঠে যেখানে শিরোপার জন্য লড়বেন দুই দলের ২২ ক্রিকেটার, সেখানে ডাগআউটে থেকে নিজেদের মধ্যে লড়াইটা চালিয়ে যাবেন ফরচুন বরিশালের কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মোহাম্মদ সালাউদ্দিন।

বিপিএলের ফাইনালে এর আগে এক বারই (২০১৯) মুখোমুখি হয়েছিলেন তারা। সেবার সুজনের ঢাকা ডায়ানমাইটসকে ১৭ রানে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিলেন সালাউদ্দিন। সুজনের জন্য তাই আজকের মঞ্চটা ‘অলিখিত’ প্রতিশোধের। কোচ হিসেবে বিপিএলে সবচেয়ে বেশি ফাইনালে ওঠার রেকর্ড তার। কিন্তু আগের চার বারের মধ্যে জয় মাত্র একটিতে। 

২০১৬ সালে রাজশাহী কিংসকে ৫৬ রানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তার দল ঢাকা ডায়নামাইটস। সেবার অধিনায়ক ছিলেন সাকিব আল হাসান এবারও তার হাতেই নেতৃত্বের বাটন। তাই মাথা খাটিয়েই সুজনকে পরাজিত করতে হবে বলে জানালেন সালাউদ্দিন, ‘সুজন ভাই বিপিএলে বেশির ভাগ ফাইনালেই খেলেছে। নিশ্চয়ই তার ভেতর কিছু আছে, যেটাতে ভর করে প্রতিবারই টিমটাকে ফাইনালে নিয়ে গেছে সে। তাদের দলটা কিন্তু শুরুতে অতো ভালো হয়নি। এরপরও তারা খুব ভালোভাবে ফিরেছে। সুজন ভাইয়ের ট্র্যাক রেকর্ডও ভালো। অবশ্যই সুজন ভাইয়ের মাথার সঙ্গেও আমার খেলতে হবে।’ 

সালাউদ্দিন বিপিএলের ফাইনালে শতভাগ সফল। দুই বার খেলে দুই বারই জিতেছেন শিরোপা। দুটোই (২০১৫, ২০১৯) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে। সফলতার সেই ধারা এবারও বজায় রাখতে চান তিনি। কিন্তু সুজনের চেয়ে বেশি চাপের মধ্যে আছেন তিনি। চলতি আসরে বরিশালকে প্রথম দেখায় হারালেও পরের দুই ম্যাচে মাথা নিচু করে মাঠ ছেড়েছে তার দল। কোয়ালিফায়ারে বরিশালের বিপক্ষে অল্প রানের লক্ষ্যও তাড়া করতে পারেনি। সে হিসেবে আজ একটু হলেও এগিয়ে থাকবেন সুজন।

 

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন