শনিবার, ২১ মে ২০২২, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

টেন মিনিট স্কুলের সঙ্গে যুক্ত হলেন সালমান হোসাইন

আপডেট : ১০ মে ২০২২, ১৮:৩৮

দেশের সবচেয়ে বড় ই-লার্নিং প্রতিষ্ঠান টেন মিনিট স্কুলের সঙ্গে সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও চিফ অপারেটিং অফিসার হিসেবে যুক্ত হলেন মির্জা সালমান হোসাইন বেগ। চিফ অপারেটিং অফিসার হিসেবে তিনি টেন মিনিট স্কুলের প্রোডাক্ট, ফান্ডরেইজিং ও গ্রোথের নেতৃত্বে থাকবেন। 

এতদিন তিনি একজন অ্যাডভাইজার (পরামর্শক) এবং বোর্ড ডিরেক্টর হিসেবে আগে থেকেই টেন মিনিট স্কুলের সঙ্গে যুক্ত আছেন। ২০২১ এর ডিসেম্বরে সেকইয়া ক্যাপিটাল থেকে টেন মিনিট স্কুলের পাওয়া ১৭ কোটি টাকার বিনিয়োগ নিশ্চিতে তার বিশেষ ভূমিকা ছিল।

বিশ্বের ৫০টিরও বেশি স্টার্টআপে বিনিয়োগের অভিজ্ঞতা নিয়ে সালমান অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমের একজন সক্রিয় অংশ হিসেবে কাজ করছেন। থাইল্যান্ডে কাজ শুরুর আগে তিনি ডিজিটাল চ্যানেলের প্রধান (হেড অব ডিজিটাল চ্যানেলস) হিসেবে গ্রামীণফোনে কাজ করেছেন; সেখানে শুরু থেকেই তিনি ডিজিটাল ও ডিস্ট্রিবিউশন চ্যানেলগুলোর ডেভেলপমেন্টের নেতৃত্বে ছিলেন। এ ছাড়াও তিনি জি অ্যান্ড আর অ্যাড নেটওয়ার্কের সেলস ও মার্কেটিং বিভাগের নেতৃত্বে ছিলেন এবং জেনেক্স ইনফোসিসের চিফ রেভিনিউ অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি ১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে একজন টেকনো-কমার্শিয়াল লিডার হিসেবে দক্ষিণ এশিয়ায় প্রোডাক্ট ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কাজ করছেন৷। টেন মিনিট স্কুলে যোগ দেওয়ার পূর্বে তিনি ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে টেলেনর থাইল্যান্ডের ইনোভেশন টিমের নেতৃত্বে ছিলেন।

টেন মিনিট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও আয়মান সাদিক বলেন, সালমান ভাই একজন চমৎকার লিডার ও ম্যানেজার। তিনি আমাদের সাথে থাকলে টেন মিনিট স্কুলের অপারেশন ১০ গুণ বেশি বড় হবে। তিনি আরও বলেন, তার দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা টেন মিনিট স্কুলের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। টেন মিনিট স্কুলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও চিফ অপারেটিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালনে ব্যবসায়িক কার্যক্রম সম্প্রসারণ এবং কার্যকর টেক প্রোডাক্ট তৈরিতে তার পরীক্ষিত রেকর্ড কার্যকর ভূমিকা রাখবে৷ প্রোডাক্ট ও বিজনেস ফিল্ডে অভিজ্ঞতা, আর দেশকে কিছু ফিরিয়ে দেওয়ার তুমুল ইচ্ছা নিয়ে তাঁর টেন মিনিট স্কুলে যোগদান আমাদের লক্ষ্য পূরণে অনেক বড় ভূমিকা রাখবে। আমরা অধীর আগ্রহে তার সঙ্গে কাজ করার অপেক্ষায়।

এ প্রসঙ্গে সালমান বলেন, গত ১০ বছরে টেলিনরে কাজ করার মাধ্যমে প্রোডাক্ট ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট নিয়ে আমার অনেক কিছুই শেখা হয়েছে।" তিনি আরও বলেন, আয়মান ও টেন মিনিট স্কুলের দুর্দান্ত টিমের সাথে আমরা এই কোম্পানিতে শিক্ষার্থীদের জন্য উপযোগী বিশ্বমানের প্রোডাক্ট তৈরি করবো; এবং সবার জন্যে অনলাইনে গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করবো। শিক্ষার্থীদের জন্যে নেক্সট জেনারেশন লার্নিং প্রোডাক্ট তৈরির এই দুর্দান্ত জার্নির একজন হতে পেরে আমি নিজেও বেশ আনন্দিত।

উল্লেখ্য, টেন মিনিট স্কুল দেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষামূলক অ্যাপ; যেখানে রয়েছে ১ম-১২শ শ্রেণির বোর্ড সিলেবাসভিত্তিক ৪০ হাজার ভিডিও এবং ৭০টিরও বেশি স্কিল ডেভেলপমেন্ট কোর্স। ৩৬ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী এই অ্যাপের সাহায্যে পড়াশোনা করছে। ২৮ লাখের বেশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাহায্যে পড়াশোনা সংক্রান্ত সহযোগিতা পাচ্ছে। প্রযুক্তির সাহায্যে গুণগত শিক্ষা বাংলাদেশের প্রতিটি শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছানোর লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

‘নগদ কাপ গলফ টুর্নামেন্ট’ উদ্বোধন

সিনিয়র সচিব হিসেবে নিয়োগ পেলেন গোলাম মো. হাসিবুল আলম

বিমান বাহিনীর ১১৯তম জুনিয়র কমান্ড ও স্টাফ কোর্সের সনদ বিতরণী অনুষ্ঠিত

দলের জন্য দেশের জন্য নিবেদিতপ্রাণ নেতাকর্মীদের স্মরণ করা আমাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে: ড. আবদুল ওয়াদুদ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

একজন অনন্য ফারহানা কাউনাইন

অনার্স-মাস্টার্স শিক্ষকদের আন্দোলন স্থগিত

কানাডার আন্তর্জাতিক শিক্ষা সম্মেলনে অর্ণব চক্রবর্তী

আন্তর্জাতিক জাদুঘর দিবস বুধবার