সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বঙ্গবন্ধু টানেল রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পাচ্ছে চীনা প্রতিষ্ঠান

আপডেট : ১৯ মে ২০২২, ০১:৫০

চট্টগ্রামে কর্নফুলী নদীতে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল রক্ষাণাবেক্ষণের দায়িত্ব পাচ্ছে চায়না কমিউনিকেশনস কন্সট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড (সিসিসিসি)। এই প্রস্তাবটিসহ তিনটি প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। বুধবার (১৮ মে) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় তিনটি প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়। 

সভা শেষে অনুমোদিত প্রস্তাবের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী। তিনি জানান, ৩ দশমিক ৩২ কিলোমিটার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল রক্ষণাবেক্ষণ ও টোল আদায়ের লক্ষ্যে সার্ভিস প্রোভাইডার/অপারেটর হিসেবে সিসিসিসিকে নিয়োগের সরাসরি ক্রয় পদ্ধতির প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। 

তিনি জানান, ঢাকা জেলার দোহার উপজেলাধীন মাঝিরচর থেকে নারিশাবাজার হয়ে মোকসেদপুর পর্যন্ত পদ্মা নদী ড্রেজিং ও বাম তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের পূর্ত কাজ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাধ্যমে বাস্তবায়নের প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সভায়, কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলাধীন নির্মিতব্য মিঠামইন সেনা স্থাপনার ভূমি সমতল উঁচুকরণ, ওয়েভ প্রটেকশন ও তীর প্রতিরক্ষা প্রকল্পের পূর্ত কাজ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাধ্যমে বাস্তবায়নের প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভা শেষে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে মোট আটটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। 

জিল্লুর রহমান চৌধুরী জানান, সভায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অধীন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর প্রকল্পের বিস্তারিত সম্ভাব্যতা সমীক্ষা (১ম সংশোধিত)’ প্রকল্পে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিপ্পন কোই কো.লিমিটেডকে ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৩ কোটি ২৬ লাখ ২৪ হাজার টাকা ব্যয় বৃদ্ধির ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বিমানবন্দরের সম্ভাব্যতা বিষয়ে বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সম্ভাব্য স্হান নির্বাচন নিয়ে বৈঠকে কয়েকটি বিকল্প নিয়ে কথা হয়। কয়েক জন মন্ত্রী মাদারীপুর-শরীয়তপুরে করার পক্ষে মত দেন। কিন্তু কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এর সঙ্গে দ্বিমত প্রকাশ করে বলেন, আগের জায়গায় অর্থাত্ মুন্সীগঞ্জে বিমানবন্দরটি হলে ভালো হয়। কারণ, মাদারীপুর থেকে ঢাকার দূরত্ব বেশি। এখানে বিমানবন্দর তৈরি করা হলে যানজট বাড়বে। তার চেয়ে মুন্সীগঞ্জ হলে ভালো হয়। তবে এটা নিয়ে বৈঠকে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, এক দশকেরও বেশি সময় ধরে রাজধানীর আশপাশে আন্তর্জাতিক একটি বিমানবন্দর নির্মাণের বিষয়টি আলোচিত হচ্ছে। কিন্তু নানা জটিলতার কারণে বিমানবন্দর নির্মাণের জন্য একটি উপযুক্ত স্থান বাছাইয়ের কাজ করা যায়নি। ২০১০ সালে সরকার মুন্সীগঞ্জের আড়িয়াল বিলে বিমানবন্দর করার সিদ্ধান্ত জানালে স্হানীয়রা আন্দোলনে নামেন। পরে সরকার সেখানে বিমানবন্দর নির্মাণের চিন্তা থেকে সরে আসার ঘোষণা দেয়। উপযুক্ত স্থান নির্বাচনে সমীক্ষা চলছে।

ক্রয় কমিটির সভায় অনুমোদন পাওয়া অন্য প্রস্তাবগুলোর মধ্যে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীন পেট্রোবাংলা কর্তৃক স্পট মার্কেট থেকে সিঙ্গাপুরের ভিটোল এশিয়া প্রা. লিমিটেডের নিকট থেকে ৩৩ লাখ ৬০ হাজার এমএমবিটিইউ এলএনজি সর্বমোট ৯০৯ কোটি ১৪ লাখ ৫০ হাজার টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) কর্তৃক মরক্কো থেকে ৪০ হাজার মে. টন ডিএপি সার বর্তমান আন্তর্জাতিক বাজার মূল্যে ৪০৭ কোটি ৪১ লাখ ৫০ হাজার টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

 

ইত্তেফাক/ ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

শীতের সবজি মিলবে গরমেও!

বন্ধ হলো ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে রাজশাহীতে উৎসব

সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের জন্য খাদ্যসামগ্রী পাঠালেন রাসিক মেয়র 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

পদ্মা সেতু উৎসবে মাতবে রাজশাহীও

রাজশাহীতে স্ত্রীকে ভাগিয়ে বিয়ে করায় ছুরিকাঘাতে দলিল লেখক নিহত

ফের প্রস্তুত হচ্ছে রামেক করোনা ইউনিট

ফের প্রস্তুত হচ্ছে রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিট