মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শায়েস্তাগঞ্জে বোরো ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত 

আপডেট : ১৯ মে ২০২২, ১৭:২৬

শায়েস্তাগঞ্জে বোরো ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কৃষকরা। এখন ও পুরোদমে সব এলাকায় বোরো ধান কাটা শুরু না হলে ও কোন কোন এলাকা জুড়ে বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। আশানুরূপ ফলন হওয়ায় কৃষকদের মুখে হাসি ফুটে উঠলেও ধান কাটার শ্রমিক সংকটে হতাশ কৃষকরা। 

সময় মতো ধান কাটার কৃষি শ্রমিক পাচ্ছেন না। এতে তারা অনেকটাই হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন।কোন কোন এলাকায় ধান কাটার শ্রমিক পাওয়া গেলেও তাতে তাদের মজুরি অনেক বেশী। এতে করেও কৃষকরা অনেক বিপাকে পড়েছেন। গত কয়েক দিন ধরেই অতি বৃষ্টিতে অনেক কৃষকরাই ধান কেটে বাড়িতে নিয়ে  মাড়াই কার্যক্রম বন্ধ রেখেছেন। সে কারণে ধান শুকাতে না পাড়ায় ঘরে তুলতে পারছেন না কৃষক। 

বোরো ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কৃষকরা

উপজেলার শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের কৃষক মো. শাহসন মিয়া জানান, এক সাথে ৪ একর জমির ধান পাকায় শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। অনেক বাড়তি পারিশ্রমিক দিয়ে শ্রমিক নিতে হচ্ছে। তাছাড়া অতিবৃষ্টির ফলে অনেক নিচু জমির ধান  পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। 

শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নের কৃষক মো. দিদার হোসেন বলেন, তিনি এক একর জমির ধান কেটে ফেলেছেন কিন্তু দু-দিনের অতি বৃষ্টির কারণে ধান শুকাতে পারছেন না এবং ঘরে তুলতে ও পারছেন না। 

অনেক নিচু এলাকা গত দু’দিনের বৃষ্টিতে জমির ধান পানিতে তলিয়ে  গেছে

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন  এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নের অনেক নিচু এলাকা গত দু’দিনের বৃষ্টিতে জমির ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। ওই সব এলাকায় কিছু কিছু জমির ধান আধা-পাকা ও রয়েছে। সব মিলিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার কৃষকরা এখন বোরো ধান কাটা ও ধান মাড়াইয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় দায়িত্বরত হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা শুকান্ত ধর বলেন, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় এবার মোট ২০১০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে উফশী জাতের ধান ১৮’শ হেক্টর  ও অন্যসবই বোরো ধানের আবাদ করা হয়েছে। বোরো ধান ক্ষেতে কোন রোগ বালাই নেই। আবহাওয়া অণুকুলে থাকলে এবার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় কৃষকরা বোরো ধানের আশানুরূপ ফসল ঘরে তুলতে পারবে। এ পর্যন্ত ১৯মে ২০২২ইং শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় মোট ৮শ’হেক্টর জমির ধান কাটা হয়েছে। 

ইত্তেফাক/এআই