মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ছাত্রলীগের হামলার মুখে পিছু হটলো ছাত্রদল

আপডেট : ২৪ মে ২০২২, ১৬:৫১

ছাত্রলীগের হামলার মুখে পড়ে পিছু হটেছে ছাত্রদল। দীর্ঘ চার ঘন্টা ধরে দফায় দফায় সংঘর্ষের পর ছাত্রদল পিছু হটেছে। এর আগে সকাল সাড়ে নয়টা থেকে সংঘর্ষের শুরু হয়। এ সংঘর্ষে ছাত্রদলের অন্তত ৭০ নেতা-কর্মী আহত হয়। আহতদের রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপরদিকে ছাত্রীগের ১৫ থেকে ২০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়।

মঙ্গলবার (২৪ মে) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে শহীদ মিনার এলাকায় প্রথম সংঘর্ষ হয়। পরে সাড়ে দশটার দিকে প্রথমবার ও বেলা ১১টায় দ্বিতীয় দফা হামলা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ঘটে। পরে ১২টার দিকে ফের মেডিকেল মোড় এলাকায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রদলের অন্তত ৬০ জন ও ছাত্রলীগের ২০ জন কর্মী আহত হয়। তিন দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার পর ছাত্রদল পিছু হটে৷ অন্যদিকে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়কে অবস্থান নেয় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

হামলায় ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি রাশেদ ইকবাল খান, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আফসান মোহাম্মদ ইয়াহইয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের আহ্বায়ক আক্তার হোসেন, সজীব মজুমদার, এবিএম এজাজুল কবির রুয়েল, আবু সুফিয়ান, মোস্তাফিজুর রহমান, শাহজাহান শাওন, হাসান আল আরিফ, মোস্তাফিজুর রহমান রুবেল, আহ্বায়ক সদস্য মানসুরা আলম, ওমর সানী, আহবায়ক সদস্য নাহিদুজ্জামান শিপন, মওদুদ হোসাইন মঈন, মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের সভাপতি তারেক হাসান মামুন, সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম খলিল, মুহসিন হলের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, এফ রহমান হলের কর্মী সেজান মাহমুদ আহত হন। 

ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘ছাত্রদলের নেতাদের বক্তব্যে আমরা যে ধরনের শিষ্টাচার-লঙ্ঘন দেখি, সেটি খুনি ও দণ্ডপ্রাপ্ত উচ্চমাধ্যমিক পাস না করা একজন নেতা এবং অষ্টম শ্রেণি পাস প্রধানমন্ত্রীর মানদণ্ডেরই উপযুক্ত৷ ছাত্রদলের এসব কর্মকাণ্ড, উসকানিমূলক বক্তব্য-বিবৃতি এবং অছাত্র-বহিরাগতদের কাছে ছাত্ররাজনীতির ঠিকাদারি দেওয়ার কারণে স্বাভাবিকভাবেই তাদের ওপর শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ আছে। সে ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা সংঘবদ্ধ হয়ে যদি প্রতিবাদ জানান, সেটিকে আমরা স্বাগত জানাই।'

ঢাবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক আক্তার হোসেন বলেন, আমাদের সাধারণ সম্পাদক সাইফ হোসেন জুয়েলের বক্তব্যের বিষয়ে আমরা ব্যাখ্যা নিয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন করতে টিএসসিতে যাচ্ছিলাম। ঢাকা মেডিকেল কলেজ এলাকা থেকে আমাদের মিছিলটি শহীদ মিনার পর্যন্ত আসলে ছাত্রলীগের কিছু সন্ত্রাসী আমাদের উপর হামলা করে। পরে আমরা প্রতিরোধ করি। 

তিনি বলেন, 'ছাত্রলীগ একটি সন্ত্রাসী সংগঠন। একটি শান্তিপূর্ণ সমাবেশে তারা আমাদের উপর বর্বরের মতো আক্রমণ করেছে। অন্যদিকে ক্যাম্পাসে যারা লাঠিসোটা নিয়ে মহড়া দিয়েছে তাদের উৎসাহিত করছে প্রশাসন।'

ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য সচিব আমান উল্লাহ আমান বলেন, গত কয়েকদিন ধরে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের নামে কুৎসা রটাচ্ছে। কোন বক্তব্যের মধ্যে অসৌজন্যতা রয়েছে তার কোন ব্যাখ্যা তারা দেয়নি। আমরা এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করতে সাংবাদিক সমিতিতে যাচ্ছিলা। কিন্তু শহীদ মিনার এলাকা পর্যন্ত গেলে তারা আমাদের হামলা করে। 

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রাব্বানী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আজকে সাংবিধানিক একটি গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন চলছে। এসময় ক্যাম্পাসে কোন ধরনের অস্থিতীশীল পরিস্থিতি কাম্য নয়। আমরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনিকে নির্দেশ দিয়েছি। যারা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। 

ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরেও যারা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অধ্যাপক রাব্বানী।

 

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ঢামেকের ইন্টার্ন চিকিৎসককে ঢাবি শিক্ষার্থীদের মারধরের অভিযোগ

সিকৃবি ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা, সভাপতি আশিক ও সম্পাদক এমাদুল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য হিসেবে মোকতাদির চৌধুরী ফের মনোনীত

ঢাবিতে অবহেলায় বাড়ছে সেশনজট

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ঢাবি ‘চ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল জানা যাবে আজ

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ,  ৯১ শতাংশই ফেল 

ঢাবি ভর্তি পরীক্ষা : নম্বরের জটিল সমীকরণে আটকে যায় পরীক্ষার্থীরা