মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

যৌবন ফিরে পেতে হত্যাকাণ্ড

আপডেট : ০২ জুন ২০২২, ০২:০৪

হারানো যৌবন ফিরে পেতে কবিরাজের নির্দেশে নৃশংস হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন চুয়াডাঙ্গা সদর থানার লিটন মালিতা (৪০) নামে একজন ব্যক্তি। যশোরের বাঘারপাড়ায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে পালিয়ে আসেন মানিকগঞ্জের ঘিওরে, কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি তার। ডিবি পুলিশের হাতে ধরা পড়লেন চুয়াডাঙ্গা সদর থানার মোহাম্মদ জুমা গ্রামের লিটন। 

বুধবার (১ জুন) উপজেলার পয়লা ইউনিয়নের চড় বাইলজুরী এলাকা থেকে গ্রেফতারকালে হত্যার শিকার ঐ ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ, অন্ডকোষ ও একটি চোখ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘিওর থানার ওসি মো. রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব এ তথ্য জানান।

জানা গেছে, গত সোমবার বাঘারপাড়ায় নকিম উদ্দীন (৬০) নামের এক কৃষানকে হত্যা করা হয়। গত ২৬ মে উপজেলার ছাতিয়ানতলা বাজার থেকে ধান কাটার জন্য কৃষান হিসেবে নকিম উদ্দীনসহ তিনজনকে বাড়িতে নিয়ে আসেন পাইকপাড়া গ্রামের বেনজির আহম্মেদ। এর মধ্যে গত রবিবার একজন শ্রমিক চলে যান। গত সোমবার সকাল ৬টায় কৃষানদের দরজা খোলা দেখতে পেয়ে ভেতরে গিয়ে দেখা যায় জখম অবস্হায় কৃষান নকিম উদ্দীনের লাশ খাটের ওপর পড়ে আছে। 

বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ উদ্দীন জানান, ওই ব্যক্তিকে হত্যার পর পুরুষাঙ্গ কেটে দেয় ও ডান চোখ উপড়ে ফেলে।

ঘিওর থানার ওসি রিয়াজ উদ্দিন বলেন, ‘লিটন দীর্ঘ দিন ধরে যৌন রোগে ভুগছিলেন। পরে স্হানীয় এক কবিরাজের শরণাপন্ন হন তিনি। সেই কবিরাজ লিটনকে মানুষের ওই তিনটি অঙ্গ নিয়ে এলে হারানো যৌবন ফিরে পাবে বলে জানান। পরে কৃষিশ্রমিককে তিনি খুন করেন। কবিরাজের নাম-ঠিকানা জানা নেই বলে জানান ঘাতক।’

ইত্তেফাক/মাহি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

লোহাগাড়ায় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

থেমে থাকা বাসকে চলন্ত বাসের ধাক্কা, আহত ২৫

সুনামগঞ্জে হত্যামামলায় ১ জনের আমৃত্যু, ৫ জনের যাবজ্জীবন

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারীরা পেলো ছাগল ও সেলাই মেশিন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

রক্সি পেইন্টের কর্মকর্তা হত্যা মামলায় বাপ-ছেলে গ্রেফতার

দুজন খামারি পেলেন ফ্রিজার ভ্যান ও পিকআপ 

বঙ্গমাতার জন্মদিনে অসহায় নারীরা পেলেন সেলাই মেশিন  

সাত মাসে ১৫০০ কেজি ফল বিক্রি করেছেন শহিদুল