শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের জন্য খাদ্যসামগ্রী পাঠালেন রাসিক মেয়র 

আপডেট : ২২ জুন ২০২২, ১৮:৫৮

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের মধ্যে বিতরণের জন্য ৫ হাজার প্যাকেট খাদ্যসামগ্রী পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। 

রাসিক মেয়রের নির্দেশে বুধবার (২২ জুন) বিকালে নগর ভবন থেকে সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দুই ট্রাক খাদ্যসামগ্রী নিয়ে সিলেট ও সুনামগঞ্জের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। খাদ্যসামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে রয়েছে ২ কেজি চিড়া, ১ কেজি চিনি, ৫০০ গ্রাম মুড়ি, ১ প্যাকেট বিস্কুট, এক বক্স (২০ প্যাকেট) খাবার স্যালাইন, ২৫০ গ্রাম খাগরাই, নাপা ওষুধ, মোমবাতি ও দিয়াশলাই।

এবিষয়ে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সিলেট ও সুনামগঞ্জ ও বন্যাদুর্গত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের জন্য খাদ্যসামগ্রী পাঠানো হচ্ছে। সিলেট ও সুনামগঞ্জের এই প্রাকৃতিক দুযোর্গকালীন মুহূর্তে সমাজের বিত্তবান মানুষকে বন্যাদুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি।’

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘দেশের মানুষের যেকোনো সংকটে সবসময় পাশে থাকে গণমানুষের দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে করোনাকালীন সংকটে আমরা মানুষের পাশে ছিলাম, এভাবেই আগামীতেও দেশের যেকোনো সংকট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের পাশে থাকবো।’  

নগর ভবন থেকে ট্রাক রওনা দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ত্রাণ ও দুযোর্গ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহাদত আলী শাহু, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন, সচিব মো. মশিউর রহমান, ত্রাণ ও দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা সৈয়দ জুবায়ের হোসেন মুন।

এদিকে, রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের পাঠানো খাদ্যসামগ্রী বিতরণের জন্য ইতোমধ্যে সিলেট ও সুনামগঞ্জে গেছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের যে কাউন্সিলররা, তারা হলেন- রাসিকের ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মমিন, ১৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনার, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম ও ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন।

ইত্তেফাক/মাহি