বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নূপুর শর্মার সমর্থনে পোস্ট: দর্জিকে কুপিয়ে হত্যা, কারফিউ জারি

আপডেট : ২৯ জুন ২০২২, ১১:২৮

মহানবি (সা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যকারী বিজেপির বহিষ্কৃত মুখপাত্র নূপুর শর্মার সমর্থনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট দেওয়ায় এক দর্জিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুই যুবক। এই ঘটনায় ওই এলাকায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে, ইন্টারনেট ২৪ ঘণ্টার জন্য বন্ধ এবং এক মাসের জন্য বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার (২৮ জুন) দুপুরে রাজস্থানের উদয়পুরে মালদাস এলাকায় নিজ দোকানে ওই দর্জিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে এ ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় জনতা সহিংস হয়ে উঠলে পুরো রাজস্থান রাজ্যে সতর্কতা জারি করা হয়, ইন্টারনেট ২৪ ঘণ্টার জন্য বন্ধ এবং এক মাসের জন্য বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। রাজ্য সরকার উদয়পুর ও এর আশপাশে ৬০০ অতিরিক্ত সৈন্য মোতায়েন করেছে এবং শহরের কিছু অংশে কারফিউ ঘোষণা করেছে।

জানা যায়, কানহাইয়া লাল নামের ওই দর্জিকে একাধিকবার ছুরিকাঘাত করা হয় এবং তার দোকানে আসা দুই ব্যক্তি তার গলা কেটে ফেলে। তবে হত্যাকাণ্ডটি হামলাকারীদের একজন ভিডিও ধারণ করে এবং তারা দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে হত্যার হুমকিও দিয়েছে।

ভিডিওতে হামলাকারীদের একজনের পোশাকের জন্য মাপ নিতে দেখা যায় দর্জিকে। এরপরই তার ওপর শুরু হয় হামলা।

এই হত্যাকাণ্ডে উদয়পুর এবং রাজ্যজুড়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ও অন্যান্য নেতারা শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

হত্যাকাণ্ডের ভিডিওটি শেয়ার না করার অনুরোধ করেছে পুলিশ। পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হাওয়াসিং ঝুমারিয়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, গণমাধ্যমকে ভিডিওটি প্রচার না করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, কানহাইয়া লাল কয়েকটি সংগঠনের কাছ থেকে হুমকি পেয়েছিলেন।

মঙ্গলবার বিষয়টি তদন্তের জন্য একটি বিশেষ তদন্ত দল (এসআইটি) গঠন করেছে রাজস্থান সরকার।

ইত্তেফাক/টিআর