শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

তাইওয়ান পার্লামেন্টে স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২২, ১৪:১১

চীনা হুমকির মুখে রাতে তাইওয়ানে নেমে বুধবার সকালে দেশটির পার্লামেন্টে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের স্পিকার ও দেশটির ডেমোক্র্যাটিক পার্টির অন্যতম শীর্ষ ব্যক্তিত্ব ন্যান্সি পেলোসি। পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে তিনি জানিয়েছেন যে যুক্তরাষ্ট্র ও তাইওয়ানের মধ্যে সংসদীয় আদান-প্রদান তিনি আরও বাড়াতে চান। একই সঙ্গে তার বক্তৃতায় তিনি তাইওয়ানকে 'বিশ্বের অন্যতম মুক্ত সমাজ' আখ্যায়িত করেছেন। এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। 

সকালে পার্লামেন্ট ভবনে পৌঁছালে সেখানে মার্কিন স্পিকারকে স্বাগত জানান পার্লামেন্টের ভাইস প্রেসিডেন্ট সাই খাই চং। পরে সেখানে দেওয়া ভাষণে তাইওয়ানের সমাজব্যবস্থাকে ‘বিশ্বের অন্যতম মুক্ত সমাজ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন ন্যান্সি পেলোসি।

এর আগে তাইওয়ানে পৌঁছে টুইটারে দেওয়া পোস্টে পেলোসি বলেন, এই সফরের মধ্য দিয়ে তার নেতৃত্বাধীন প্রতিনিধি দল তাইওয়ানের গতিশীল গণতন্ত্রের প্রতি, যুক্তরাষ্ট্রের অবিচল প্রতিশ্রুতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছে। টুইটে তিনি বলেন, তাইওয়ানের দুই কোটি ৩০ লাখ মানুষের সঙ্গে আমেরিকার সংহতি এখন আগের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, চীনের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সত্ত্বেও তার প্রতিনিধিদলের তাইওয়ান সফর ছিল দ্বীপ দেশটির প্রতি তাদের সমর্থন প্রদর্শন। বুধবার (৩ জুলাই) সকালে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের দফতরে দেশটির প্রেসিডেন্ট এবং আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে আলাপকালে ওয়াশিংটনের এমন অবস্থানের বিষয়টি স্পষ্ট করেন তিনি।

তাইওয়ানসহ বাকি দুনিয়ায় গণতন্ত্র রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের সংকল্পের কথাও জানান পেলোসি। কঠিন চ্যালেঞ্জের মধ্যে থেকেও তাইওয়ানের সমৃদ্ধ গণতন্ত্রের জন্য দেশটির প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েনের প্রশংসা করেন মার্কিন স্পিকার।

ইত্তেফাক/এএইচপি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

রাশিয়ার সস্তা তেলই বাঁচিয়ে দিলো ভারতকে

ডুবন্ত ভারতীয় নৌকা থেকে ৯ কর্মীকে উদ্ধার পাকিস্তানের

চীনে মিললো নতুন ভাইরাস, আক্রান্ত ৩৫

সৌদি সফরে যাচ্ছেন চীনা প্রেসিডেন্ট

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এশিয়ার সবচেয়ে ধনী নারী যেভাবে তার অর্ধেক সম্পদ খোয়ালেন

এবার থাইল্যান্ডে 'পালালেন' গোটাবায়া  

দেখা হচ্ছে মোদি-শেহবাজের! 

ইউক্রেন সংঘাতের মূল কারণ যুক্তরাষ্ট্র: চীন