শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

গুচ্ছ মানবিকের পরীক্ষা ১৩ আগস্ট, মানতে হবে যেসব নির্দেশনা

আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২২, ২০:০৬

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘বি’ ইউনিটের (মানবিক শাখা) সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সারাদেশে মোট ৯৫ হাজার ৬৩৭ জন শিক্ষার্থী এই ভর্তিযুদ্ধে অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। 

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) বেলা ১১টায় সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে প্রেস ব্রিফিং করেন মানবিক অনুষদ পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয় কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. রইছ উদ্দীন।

তিনি বলেন, পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই সকাল সাড়ে ১১টার মধ্যে স্ব স্ব কেন্দ্রে নিজস্ব আসনে বসতে হবে। পরীক্ষার্থীরা রোল নম্বর ও ছবি সম্বলিত সিট ট্যাগ দেখে নিজ নিজ আসনে বসবে; পরীক্ষার্থীরা কোন অবস্থাতেই বই, কাগজপত্র, ব্যাগ, মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, ঘড়ি, ক্যামেরা, ট্যাব, এটিএম কার্ড বা ব্লুটুথ ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না; পরীক্ষা ১ ঘন্টাব্যাপী দুপুর ১২টা হতে বেলা ১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে; উত্তরপত্র (ওএমআর শিট) পাওয়ার পর উপরের অংশে পরীক্ষার্থীকে তার নাম বাংলা ও ইংরেজিতে এবং মাতা ও পিতার নাম সুস্পষ্টভাবে ইংরেজিতে লিখে নির্ধারিত স্থানে স্বাক্ষর করতে হবে; প্রবেশপত্র, উত্তরপত্র এবং এটেন্ডেন্স শিট এর স্বাক্ষর অবশ্যই এক হতে হবে; প্রবেশপত্র অনুযায়ী রোল নম্বর নির্দিষ্ট জায়গায় লিখে সংশ্লিষ্ট বৃত্ত যথাযথভাবে ভরাট করতে হবে; প্রশ্ন পাওয়ার পর পরীক্ষার্থীকে ওএমআর শিট -এ সর্বপ্রথম সেট কোড লিখে সংশ্লিষ্ট বৃত্ত ভরাট করতে হবে; রোল নম্বর ও সেট কোড এ কোন প্রকার ঘষামাজা অথবা কাটাকাটি করলে উত্তরপত্র সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে; পরীক্ষা চলাকালীন কোন পরীক্ষার্থী কক্ষ ত্যাগ করবে না; পরীক্ষা শেষে পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে ওএমআর শিট সংগ্রহ করার পর নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত পরীক্ষার্থীরা কক্ষে অবস্থান করবে; প্রশ্ন উভয় পৃষ্ঠায় স্পষ্টভাবে মুদ্রিত আছে কি না নিশ্চিত হতে হবে; উভয় পৃষ্ঠায় না থাকলে প্রশ্নপত্র পরিবর্তনের জন্য পরিদর্শককে অবহিত করতে হবে; পরিদর্শক উত্তরপত্র ও প্রবেশপত্রে ছবির উপর স্বাক্ষর করেছেন কি না পরীক্ষার কক্ষ ত্যাগ করার পূর্বে নিশ্চিত হতে হবে। 

লিখিত বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মো. রইছ উদ্দীন বলেন, আগামী ১৩ আগস্ট গুচ্ছ মানবিক অনুষদের ভর্তি পরীক্ষার সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। গতকালই (বুধবার) সিট-কার্ড, ডোরস্টিকারসহ পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আমরা কেন্দ্রসমূহে প্রেরণ করেছি। পরীক্ষার দিন ভর্তিচ্ছুদের সহায়তা দিতে বিএনসিসি রোভার স্কাউট, রেঞ্জার ইউনিট সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবে। কেন্দ্রের বাইরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় এবং পরীক্ষার্থীদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের সাহায্যে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে চিঠির মাধ্যমে অবগত করা হয়েছে।

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবুল হোসেন বলেন, গত পরীক্ষায় প্রশ্নপত্রের ফন্ট সাইজ নিয়ে কথা উঠেছিলো। আমরা এবিষয়ে সেন্ট্রাল কমিটিকে জানিয়েছি। এছাড়াও পরীক্ষার্থীরা এবার কোনো প্রকার মোবাইল, ঘড়ি, ডিভাইস নিয়ে যাতে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না পারে; এব্যাপারে আমাদের সর্বোচ্চ নির্দেশনা দেওয়া আছে। 

ইত্তেফাক/এআই