রোববার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসে সেনাবাহিনী ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ সেমিনার

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৩৬

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস-২০২২ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ ব্যবস্থাপনায় 'বিশ্ব শান্তিতে বাংলাদেশের ভূমিকা' শীর্ষক একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) ঢাকা সেনানিবাসস্থ সেনামালঞ্চে সেমিনারটি অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, সংসদ সদস্য প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, এসবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি, পিএইচডি বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর ভূমিকাবিষয়ক বক্তব্য প্রদান করেন। এছাড়া রাষ্ট্রদূত শহীদুল হক, প্রফেসরিয়াল ফেলো, এস আই পি জি, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাক্তন সিনিয়র সচিবও পররাষ্ট্র সচিব, বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের কুটনৈতিক উদ্যোগ সম্পর্কে বক্তব্য প্রদান করেন। 

সেমিনারে সেনাবাহিনী প্রধান তার বক্তব্যে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীদের অসামান্য অবদান করে সামগ্রিকভাবে শান্তিরক্ষীদের সার্বিক অর্জনকে তুলে ধরেন। পাশাপাশি এই অর্জনকে সমুন্নত রেখে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের আরও সক্রিয় ভূমিকা পালনে করণীয় সম্পর্কে আলোকপাত করেন। সেমিনারের অপর বক্তা, বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বর্তমানে বাংলাদেশের কূটনৈতিক উদ্যোগ এবং বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থানের সার্বিক বিষয়সমূহ করে বক্তব্য প্রদান করেন। উভয়ই বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীদের এবং বাংলাদেশের কূটনৈতিক উদ্যোগের অন্তরায়সমূহ উল্লেখপূর্বক ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনারও প্রস্তাব করেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে জাতির পিতার পররাষ্ট্রনীতির ওপর আলোকপাত করেন। তিনি বলেন, মানবজাতির প্রতি জাতির পিতার দর্শণই আমাদের সংবিধানের মূল ভিত্তি।  এই ভিত্তিকে উজ্জীবিত রাখতে আমরা সকলে বদ্ধ পরিকর থাকবো। তিনি আশা ব্যক্ত করেন, জাতির পিতার এই দর্শন এবং বাংলাদেশের সংবিধানকে সমুন্নত রেখে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী ও সকল পর্যায়ের অংশীদারগণ সমন্বিত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর আতিকুল ইসলাম তার বক্তব্যে বাংলাদেশ অভ্যন্তরে ও দেশের বাহিরে শান্তি রক্ষায় চেয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে সে বিষয়ে আলোকপাত করেন। এ বছর আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসের মূল প্রতিপাদ্য হল বর্ণবাদের অবসান, শান্তি বিনির্মাণ। এই ধারণাকে সামনে রেখে নতুন প্রজন্মের কাছে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের সক্রিয় এবং গৌরবময় ভূমিকা তুলে ধরার পাশাপাশি বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলাদেশের সকল স্তরের অংশীদারদের জন্য একটি সার্বজনীন সহায়ক ক্ষেত্র প্রস্তুত করাই হবে এই সেমিনারের মূল উদ্দেশ্য।

এই সেমিনারে আমন্ত্রিত সংসদ সদস্যগণ, বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের সামরিক উপদেষ্টা ও ডিফেন্স অ্যাটাশেগণ, বাংলাদেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরগণ, সশস্ত্র বাহিনী, বাংলাদেশ পুলিশ ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয় হতে আমন্ত্রিত ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, প্রাক্তন সেনাবাহিনী প্রধানগণ, বাংলাদেশে অবস্থিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা, জাতিসংঘ ও জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি, বিশিষ্ট শিক্ষা ব্যক্তিত্ব, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব এবং বাংলাদেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রীগণ উপস্থিত ছিলেন।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি