শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিশ্বকাপের আগে ভাবনায় ইউরোপের ফর্ম

আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:৫২

দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ খ্যাত ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ মাঠে গড়াতে অপেক্ষা আর মাত্র কিছুদিনের। কয়েক সপ্তাহ বাদেই কাতারের মাটিয়ে বসতে চলেছে বিশ্ব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের এই আসর। 

তবে বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে  ফর্ম নিয়ে ধুকছে ইউরোপীয় ফুটবলের পাওয়ার হাউজগুলো। সর্বশেষ ২০০২ সালে জাপান ও দক্ষিন কোরিয়ার যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের শিরোপা জয় করেছিল ব্রাজিল। এটি ছিল দক্ষিন আমেরিকান ফুটবল পরাশক্তির পঞ্চম শিরোপা। এরপর বিশ্বকাপের আর কোন শিরোপা ইউরোপের বাইরে যায়নি।

সর্বশেষ চারটি বিশ্বকাপ আসরের ১৬ সেমিফাইনালিস্টদের ১৩টি দলই ছিল ইউরোপের। সেখান থেকে একে একে শিরোপা নিশ্চিত করেছে ইতালি, স্পেন, জার্মানি ও ফ্রান্স। তবে এবারের কাতার আসরে খেলার যোগ্যতাই অর্জন করতে পারেনি ইতালি। আর ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি ও স্পেনের শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে রয়েছে যথেষ্ট সন্দেহ।

শীর্ষ টুর্নামেন্টে যাওয়ার আগে টানা ছয় ম্যাচে জয়হীন রয়েছে ইংল্যান্ড। যার ফলে ন্যাশনস লিগের শীর্ষ পর্ব থেকে অবনমিত হয়ে গেছে থ্রি লায়ন্সদের। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স কোন রকম একই অবস্থা থেকে নিজেদের বাঁচিয়ে নিয়েছে। তবে ন্যাশনস লিগে ছয় গ্রুপ ম্যাচের মধ্যে মাত্র একটিতে জয়লাভ করেছে লস ব্লুজরা। স্পেন সেমিফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করলেও গত সপ্তাহে নিজেদের মাঠেই সুইজারল্যান্ডের কাছে হেরেছে ২-১ গোলে।

প্রথমবারের মতো মৌসুমের মাঝপথে ইউরোপীয় দলগুলো বিশ্বকাপ বিরতিতে যাওয়ার কারণে তাদের টুর্নামেন্ট পূর্ব অনুশীলন ক্যাম্প ও প্রীতি ম্যাচ খেলার সুযোগ থাকছে কম। বর্তমান বিরতির পর বিশ্বকাপের জন্য ইউরোপীয় ক্লাবগুলো ফের বিরতিতে যাবে আগামী ১৩ নভেম্বর। এর এক সপ্তাহ পর মাঠে গড়াবে বিশ্বকাপ। এর আগে ইউরোপের শীর্ষ ক্লাবের খেলোয়াড়দের অন্তত ১৩টি করে ক্লাব ম্যাচ খেলতে হবে।

ইংল্যান্ডের কোচ গ্যারেথ সাউথগেট বলেছেন,‘ সবাইকে একই চ্যালেঞ্জের মোকাবেলা করতে হচ্ছে। এটি একটি অদ্ভুত সময়, কারণ অনেকগুলো দল নিজেদের গুছিয়ে নেয়ার মতো সময় হাতে পাবে না। যে কারণে খুব কম দলই তাদের সেরা ফর্ম খুঁজে পাবে।’

ইঞ্জুরি, ক্লান্তি এবং ন্যাশনস লিগে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ধরন ঐতিহ্যবাহী দলগুলোর সংগ্রামের কারণ হিসেবেও চিহ্নিত করা হয়েছে। ন্যাশনস লিগের একই গ্রুপে পড়েছে ইংল্যান্ড, জার্মানি ও ইতালি। সেই সঙ্গে স্পেন ও পর্তুগালও।

সাউথগেট আরো বলেন, ‘আমরা খেলার মধ্যে আছি এবং শীর্ষ পর্যায়ের দলগুলোর সঙ্গেই খেলছি। এ কারণে আমরা আরো ভালো করতে পারব। অতীতে আমরা প্রীতি ম্যাচ খেলে টুর্নামেন্টে গিয়েছি। এই প্রথম আমরা শীর্ষ পর্যায়ের প্রতিদ্বন্দ্বিতার পর খেলতে যাচ্ছি।’

গত রোববার ডেনমার্কের কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হয়েছে ফ্রান্স। তবে ইঞ্জুরির কারণে ওই ম্যাচে ছিলো না তাদের তারকা খেলোয়াড়দের কেউ। কোচ দিদিয়ের দেশ্যমের আশা বিশ্বকাপের আগেই ফিট হয়ে উঠবে ইঞ্জুরি আক্রান্ত ফুটবলাররা। তিনি বলেন,‘ গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আগামী দুই মাসের মধ্যে আমাদের সমস্ত শক্তি পুনরুদ্ধার করা।’

এদিকে ইউরোপীয় দলগুলো নিজেদের প্রস্তুত করার জন্য পর্যাপ্ত সময় পেতে ব্যর্থ হলেও পূর্ণ শক্তির দল নিয়েই কাতার বিশ্বকাপ খেলতে যাবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। শেষ বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া ৩৫ বছর বয়সি লিওনেল মেসি খেলছেন তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের সেরা দল নিয়ে। লিওনেল স্ক্যালোনির দলটি রেকর্ড টানা ৩৫ ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে। যে ধারার সূচনা ২০১৯ সালে। এরই ধারাবাহিকতায় গত বছর তারা জয় করেছে কোপা আমেরিকার শিরোপা। এটি ছিল আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে মেসির সবচেয়ে বড় শিরোপা।      

অপরদিকে নিজেদের মাঠে কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনার কাছে পরাজয়টিই হচ্ছে ২৯টি আন্তর্জাতিক ম্যাচের মধ্যে ব্রাজিলের একমাত্র হার। তবে ওই ম্যাচগুলোর বেশীরভাগই ছিল প্রীতি ম্যাচ ও দূর্বল প্রতিপক্ষের সঙ্গে বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব।

অবশ্য আর্জেন্টাইন দলটিকে নিয়ে সব সন্দেহের অবসান ঘটেছে গত জুনে। ইউরোপ ও দক্ষিণ আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ওই ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আর্জেন্টিনা ও ইতালি। ম্যাচে ৩-০ গোলে জয়লাভ করে দক্ষিন আমেরিকার চ্যাম্পিয়নরা।

সূত্র: বাসস

ইত্তেফাক/এসএস

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন