বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

স্কুল কমিটির সভাপতি ও অধ্যক্ষের মধ্যে মারামারি

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২২, ২১:২৯

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বরে শহীদ নাদের আলী গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। রোববার (২ অক্টোবর) সকাল সড়ে ৮টার দিকে প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ রুহুল আমিনের ভাড়া বাড়ির সামনে এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি মাহাবুর রহমান বাবু (৫৫) আহত হয়েছেন। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত মাহাবুবুর রহমান বাবু উপজেলার বানেশ্বর এলাকার সমসের আলীর ছেলে। 

মাহাবুর রহমান বাবু।

মাহাবুবুর রহমান বাবু বলেন, ‘আমি অধ্যক্ষকে দুর্নীতির দায়ে বরখাস্ত করি। এ কারণে তিনি বিভিন্ন সময় আমাকে হত্যার চেষ্টা চালান। আজ রোববার সকালে আমি বানেশ্বর হাটের অধ্যক্ষর ভাড়াবাড়ির সংলগ্ন সরকার অয়েল অ্যান্ড ডাউল মিলে তেল নিতে যাই। এ সময় অধ্যক্ষ রুহুল আমিন, তার স্ত্রী ও স্ত্রীর ভাই আমাকে দেখতে পেয়ে আমার ওপর হামলা চালান। এ সময় অধ্যক্ষ রুহুল আমিনের ভাই তার হাতে থাকা ধরালো অস্ত্র দিয়ে আমাকে আঘাত করেন। আমার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এলে তারা পালিয়ে যান। পরে আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছি।’ 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মাহাবুর রহমান।

এ বিষয়ে অধ্যক্ষ রুহুল আমিন বলেন, ‘সকালে আমার বাড়ির সামনে এসে সভাপতি চিৎকার ও গালমন্দ শুরু করেন। আমি তার গালমন্দ শুনে নিচে নেমে আসি। এ সময় সভাপতি আমার কলার ধরে মারধর শুরু করলে আমরা স্ত্রী বিয়য়টি দেখতে পেয়ে আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে। দুইজনের ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে লোকজন এগিয়ে এসে আমাদের ছাড়িয়ে দেয়।’ তবে সভাপতিকে ধারালো অস্ত্রের আঘাত করার বিষয়টি তিনি মিথ্যা বলে দাবি করেন।

পুঠিয়া থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, ‘দুই পক্ষই থানায় এসেছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ইত্তেফাক/এএএম