বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ইস্তাম্বুলে বোমা বিস্ফোরণে সন্দেহভাজন হামলাকারী আটক

আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০২২, ১০:৫৭

তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে হঠাৎ বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। সেখানের ব্যস্ততম ইস্তিকলাল অ্যাভিনিউতে এ ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত আটজন নিহত এবং ৮১ জন আহত হয়েছেন। তুর্কি পুলিশ এই বোমা হামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে একজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছেন। আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সোয়লু সোমবার (১৪ নভেম্বর) সাংবাদিকদের জানান, তুরস্কের বৃহত্তম শহরের একটি ব্যস্ত সড়কে বোমাটি বিস্ফোরণের ঘটনায় এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। ইস্তিকলাল অ্যাভিনিউতে রোববারের (১৩ নভেম্বর) বিস্ফোরণের জন্য সোয়লু নিষিদ্ধ কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টিকে (পিকেকে) দায়ী করেছেন। 

তিনি জানান, তাদের মূল্যায়ন অনুযায়ী, এই মারাত্মক সন্ত্রাসী হামলার আদেশ উত্তর সিরিয়ার আইন আল-আরব থেকে এসেছে। গোষ্ঠীটির সিরিয়ার সদর দফতর রয়েছে বলে জানান সুলেমান সোয়লু। 

যারা এই জঘন্য সন্ত্রাসী হামলার জন্য দায়ী তাদের বিরুদ্ধে ইস্তাম্বুল প্রতিশোধ নেবে। মৃতের সংখ্যা ছয় থেকে আটজনে উন্নীত হয়েছে এবং ৮১ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুজনের অবস্থা সংকটজনক বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

যদিও এখনো কোনো গোষ্ঠী এই বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সোয়লু

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান রোববারের বিস্ফোরণকে বিশ্বাসঘাতক বলে বর্ণনা করেছেন। এটি একটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বলে ধারনা করছেন তিনি। প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, এই হামলায় একজন নারী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। ইন্দোনেশিয়ায় 'জি-২০' এর শীর্ষ সম্মেলনে যাত্রার আগে তিনি তার বক্তৃতায় এ তথ্য জানান।

বিচারমন্ত্রী বেকির বোজদাগের বরাত দিয়ে হ্যাবার টেলিভিশন জানায়, এক নারীকে ৪০ মিনিটেরও বেশি সময় ধরে ইস্তিকলাল অ্যাভিনিউয়ের একটি বেঞ্চে বসে থাকতে দেখা গেছে। তিনি বেঞ্চ থেকে উঠার কয়েক মিনিট পর বিস্ফোরণটি ঘটে। দুইটি সম্ভাবনা রয়েছে, হয় এই ব্যাগে একটি মেকানিজম রাখা ছিল এবং এটি পরে বিস্ফোরিত হয় অথবা কেউ দূর থেকে রিমোট দিয়ে বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

সোমবার সোয়লুর ঘোষণায় এই নারী সম্পর্কে কোনও বিবরণ দেওয়া হয়নি। অতীতে কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী, আইএসআইএল ও অন্যান্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো ইস্তাম্বুল ও অন্যান্য তুর্কি শহরগুলো লক্ষ্যবস্তু করেছিল।

ইত্তেফাক/ডিএস