সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অবশেষে পাঠাগারের সাইনবোর্ড বসলো রামনাথের ভিটায়

আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২২, ১২:৩৮

বানিয়াচংয়ের ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার করে ‘রামনাথ বিশ্বাস স্মৃতি পাঠাগার’ নামে সাইনবোর্ড টাঙিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে বানিয়াচং উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ের সার্ভেয়ার হাবিবুর রহমান, ২ নম্বর উত্তর-পূর্ব ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা রেজাউল করিম ও চেইনম্যান নুরুল আমীন খুঁটি পুঁতে সাইনবোর্ড টাঙিয়ে দেন।

এ সময় বানিয়াচং থানার এসআই রাকিব হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ বলেন, সময়-সুযোগে এবং বরাদ্দ সাপেক্ষে রামনাথ বিশ্বাসের নামে এখানে স্মৃতি পাঠাগার স্থাপন করা হবে।

রামনাথের ভিটায় বসানো হয়েছে পাঠাগারের সাইনবোর্ড। সংগৃহীত ছবি

প্রসঙ্গত, বানিয়াচং উপজেলার ২ নম্বর ইউনিয়নের বিদ্যাভূষণ পাড়ায় রামনাথ বিশ্বাসের বাড়িটি দীর্ঘদিন ধরে ‘দখলে’ রেখেছেন বানিয়াচং উত্তর পশ্চিম ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ।

হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নামে রেকর্ডভুক্ত ১/১ নম্বর খতিয়ানের ১ একর ১৬ শতাংশ জমি রামনাথ বিশ্বাস স্মৃতি পাঠাগারের জন্য প্রস্তাবিত ভূমি উল্লেখ করে সাইনবোর্ড টাঙানো হয়। বিশ্ববিখ্যাত ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা বানিয়াচং উপজেলা সদরের ২ নম্বর উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়নের বিদ্যাভূষণ পাড়ায়। তিনি বাইসাইকেলে বিশ্বভ্রমণ করেছিলেন। তার লেখা ভ্রমণবিষয়ক বই রয়েছে ৪০টির মতো।

রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা দেখতে সারাদেশ থেকেই পর্যটক, সাইক্লিস্ট ও সাংবাদিকরা আসেন। কিন্তু দখলদার বাহিনীর দুর্ব্যবহার ও হামলার কারণে বাড়িটি ঘুরে না দেখতে পেরে অনেকেই হতাশ হয়ে ফিরে যান। সর্বশেষ গত ১২ সেপ্টেম্বর চার সাংবাদিক বাড়িটিতে গিয়ে দখলদারদের হামলার শিকার হন।

রামনাম বিশ্বাসের বসতভিটা উদ্ধার বিষয়ে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ বলেন, এ জমি তাদের দখলে রয়েছে। সময় সুযোগ এবং বরাদ্দ সাপেক্ষে এতে রামনাথ বিশ্বাসের নামে স্মৃতি পাঠাগার করা হবে।

ইত্তেফাক/এসকে