বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ঋষি সুনাকের বাগানের জন্য কেনা ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৫:৪৩

বিপুল অর্থ খরচ করে বিখ্যাত ব্রিটিশ ভাস্কর হেনরি স্পেনসার মুরের তৈরি একটি ব্রোঞ্জের ভাস্কর্য কেনায় ক্ষোভের মুখে পড়েছে ঋষি সুনাকের সরকার। আর্থিক সংকটের এ সময়ে ভাস্কর্যটির জন্য ১৩ লাখ পাউন্ড খরচ করায় ব্রিটিশ সরকারের বিরুদ্ধে বেহিসাবি খরচের অভিযোগ উঠেছে। ইকোনোমিক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, নিলামে ভাস্কর্যটি কেনার পর এটি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের অফিসিয়াল অফিস এবং ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের বাসভবনের বাগানে পাঠানো হয়। 'ওয়ার্কিং মডেল ফর সিটেড উম্যান' নামের বিমূর্ত এ ভাস্কর্যটি তৈরি হয়েছে ১৯৮০ সালে। 

ভাস্কর্যটি গত মাসে যুক্তরাজ্যের নিলামকারী প্রতিষ্ঠান ক্রিস্টির নিলামে বিক্রি হয়েছে। ব্রিটিশ সরকারের মালিকানাধীন শিল্পকর্ম সংগ্রহশালা (গভর্নমেন্ট আর্ট কালেকশন) তা সংগ্রহ করেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

 'ওয়ার্কিং মডেল ফর সিটেড উম্যান' নামের বিমূর্ত এ ভাস্কর্যটি তৈরি হয়েছে ১৯৮০ সালে। 

যুক্তরাজ্যে এখন মূল্যস্ফীতির ঊর্ধ্বগতি চলছে, জীবনযাপনের খরচ বেড়ে গেছে ও সরকারি তহবিলে কাটছাঁট করা হচ্ছে। এমন সময় এত অর্থ ব্যয় করে ভাস্কর্যটি সংগ্রহ করা নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে।

এক বিশেষজ্ঞের বরাত দিয়ে দ্য সান জানায়, এটি একটি মহান শিল্পকর্ম। মুরের তৈরি 'বসে থাকা নারী মূর্তি' এর গুরুত্বপূর্ণ দৃষ্টান্ত এটি। তবে বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থা বিবেচনা করলে এই ভাস্কর্যের জন্য যে ব্যয় হয়েছে তা সরকারি তহবিলের অযৌক্তিক ব্যবহার বলা যেতে পারে।

ইউকে গভর্নমেন্ট আর্ট গ্যালারির সংগ্রহে ১৪ হাজারের বেশি মূল্যবান শিল্পকর্ম রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) ডাউনিং স্ট্রিটে আংশিক ঢাকা ভাস্কর্যটি দেখা যায়। ডাউনিং স্ট্রিট জানিয়েছে, শিল্পকর্মটি অধিগ্রহণের সিদ্ধান্তের সঙ্গে কোন রাজনীতিবিদ জড়িত ছিলেন না।

ক্রিস্টির ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, এই ভাস্কর্যটি মাতৃত্ব এবং গর্ভাবস্থার একটি শক্তিশালী বার্তা বহন করে। ইউকে গভর্নমেন্ট আর্ট গ্যালারির সংগ্রহে ১৪ হাজারের বেশি মূল্যবান শিল্পকর্ম রয়েছে। এই শিল্পকর্মগুলো লন্ডনের হোয়াইট হলসহ বিশ্বের বিভিন্ন ভবনে রাখা হয়েছে।

হেনরি স্পেন্সার মুর ১৯৮৬ সালে মারা যান।

হেনরি স্পেন্সার মুর ১৯৮৬ সালে মারা যান। তাকে বিংশ শতাব্দীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ব্রিটিশ শিল্পী হিসেবে বিবেচনা করা হয়। অনেকেই তাকে সে সময়ের সবচেয়ে আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত ভাস্কর বলে অভিহিত করেছেন।

ইত্তেফাক/ডিএস