মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মনপুরায় ট্রলারে জলদস্যুদের হামলা, ৪ জেলে অপহরণ

আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬:৩৮

ভোলার মনপুরায় মেঘনায় মাছ শিকারের সময় ট্রলারে জলদস্যুরা হামলা চালিয়ে মাছ, টাকাসহ চার জেলেকে অপরহরণ করেছে বলে জানিয়েছে নৌ-পুলিশ। বুধবার (৪ জানুয়ারি) ভোর ৫টার দিকে নোয়াখালীর হাতিয়ার উড়িরচর ও ভোলার মনপুরার চরপিয়াল থেকে তাদের অপহরণ করা হয়। 

অপহৃত জেলেদের পরিবারের কাছে মুঠোফোনে কল দিয়ে জনপ্রতি এক লাখ টাকা করে জলদস্যুরা মুক্তিপণ দাবি করেছে জানান অপহৃত জেলে জসিম মাঝির ভাই ফিরোজ।

এরা হলেন- জসিম মাঝি, সাইফুল মাঝি, বাচ্চু মাঝি ও মিজান মাঝি। তাদের বাড়ি মনপুরার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সাকুচিয়া গ্রামে।

এছাড়াও জলদস্যুদের মারধরে আহত জেলেরা হলেন, রিপন, নুর আলম, নাছির ও আহাদ। এদের সবার বাড়ি একই এলাকায়।

ট্রলারে থাকা অন্য জেলেরা জানান, বুধবার ভোর রাত ৫টার দিকে হাতিয়ার উড়িরচর ও মনপুরার চরপিয়াল সংলগ্ন মেঘনায় মাছ শিকারের সময় হাতিয়ার জলদস্যু মহিউদ্দিন বাহিনী হামলা চালায়। এই সময় জলদস্যুরা বেধড়ক মারধর করে নগদ টাকা, মাছ ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। পরে তারা প্রত্যেক ট্রলার থেকে একজন করে ৪ মাঝি -জসিম মাঝি, বাচ্চু মাঝি, সাইফুল মাঝি ও মিজান মাঝিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এছাড়াও জলদস্যুদের মারধরে ১০ জেলে আহত হয়।

এই ব্যাপারে হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপের নৌপুলিশের দায়িত্বে থাকা এস আই কাউছার আলম জানান, হাতিয়া ও মনপুরার মেঘনা সীমান্তে ডাকাতির ঘটনায় অপহৃত জেলেদের উদ্ধারে অভিযান চালানো হয়েছে।

এই ব্যাপারে মনপুরা কোস্টগার্ডের কন্টিজেন্ট কমান্ডার আবদুল মালেক জানান, খোঁজ-খবর নিয়ে অপহৃত জেলেদের উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

এই ব্যাপারে মনপুরা থানার ওসি সাইদ আহমেদ জানান, এই প্রথম আপনার কাছে শুনলাম। বিষয়টি খতিয়ে দেখে অপহৃত জেলেদের উদ্ধারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইত্তেফাক/আরএজে