মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস

আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১২:১৫

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ফের তাপমাত্রা ৬ এর ঘরে। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় তাপমাত্রা ছয় দশমিক দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস তেঁতুলিয়া, পঞ্চগড়। যা দেশের সর্বোনিম্ন তাপমাত্রা বলে রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।    

১৪ জানুয়ারি এ উপজেলার তাপমাত্রা ছয় দশমিক এক ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। তার আগে ১০ জানুয়ারিতে রেকর্ড হয়েছিল ছয় দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বর্তমানে তেঁতুলিয়ায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহে রূপ নিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, এক সপ্তাহ ধরেই প্রচন্ড ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে। সন্ধ্যার পর থেকে উত্তরের হিমেল হাওয়ায় শীত নেমে আসে। মধ্যরাত থেকে ভোর পর্যন্ত শীত অনুভূত হয়। দিনে রোদ থাকলেও তাপ নেই। বিকেল গড়ালেই ঠান্ডা লাগতে শুরু করে।

এতে করে হাড়কাঁপানো শীত পড়ায় বিপাকে পড়েছেন বিভিন্ন শ্রেণির খেটে খাওয়া মানুষ। ভোর ৬টা থেকে সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত কনকনে শীতের মধ্যে নদীতে পাথর তুলতে, কাউকে চা-বাগানে আবার কাউকে দিনমজুরের কাজ করতে যেতে দেখা গেছে। 

চা-শ্রমিক বাদল, বাবু ও হায়াত জানান, কয়েকদিন ধরে কনকনে শীত অনুভূত হচ্ছে। সকালে চা-বাগানের পাতা তুলতে গিয়ে হাত অবশ হয়ে আসে। তারপরও কাজ করতে হচ্ছে।

পাথর শ্রমিক আছিয়া, রমেছা খাতুন ও তাসলিমা নামের কয়েকজন নারী শ্রমজীবি নারী জানান, আমরা আজানের পর পরই ঘুম থেকে উঠি। তারপরও কাজ শেষ করে পেটের দায়ে পাথরের কাজে যেতে হচ্ছে।

এদিকে দিন-রাতে তাপমাত্রা দুই রকম থাকায় পাল্লা দিয়ে বাড়ছে শীতজনিত রোগ।

প্রথম শ্রেণির তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাসেল শাহ জানান,  বুধবার সকাল ৯টায় তেঁতুলিয়া তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ধরা হয়েছে। ভোর ৬টার দিকে এ উপজেলায় একই তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। ঘন কুয়াশা আর হিমেল বাতাসের কারণে ঠাণ্ডা অনুভব হচ্ছে।

এদিকে, দেশের উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে হিমেল হাওয়া ও ঘন কুয়াশায় কনকনে ঠান্ডায় চরম কষ্টে দিন পাড় করছেন স্থানীয়রা। টানা ১১ দিন থেকে মৃদু ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের কারণে ঠান্ডার মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় গরম কাপড়ের অভাবে অতিকষ্টে দিন পাড় অতি দরিদ্র পরিবারের মানুষজন।

কুড়িগ্রামের রাজারহাট আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তুহিন মিয়া জানান, বুধবার সকাল ৯ টায় জেলা জুড়ে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে  সাত দশমিক তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে সকাল ৬টার দিকে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে সাত দশমিক আট ডিগ্রি সেলসিয়াস।

টানা ১০ দিন থেকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বিরাজ করলেও বুধবার মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। যা আগামী এক সপ্তাহ জুড়ে মৃদু ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ থাকবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

ইত্তেফাক/আরএজে 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন