বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অনুষ্ঠিত হলো বুকওয়ার্ম-শুনবই লেখক সম্মাননা

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬:০৯

বাংলাদেশ বুকওয়ার্ম অ্যাসোসিয়েশনের পঞ্চম বর্ষপূর্তি ও বুকওয়ার্ম-শুনবই এর যৌথ আয়োজনে রাজধানীতে লেখক সম্মাননা-২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) 'লেখকের গল্প'-নামক বিশেষ সাক্ষাৎকারের পঞ্চাশ পর্ব উদযাপন, বর্ষপূর্তি পালন ছাড়াও ছিল 'বই যেভাবে মানুষের জীবনকে বদলে দেয়'- শীর্ষক আলোচনা। দ্য ডেইলি স্টার অডিটোরিয়ামের এ এস মাহমুদ সেমিনার হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন ঘরানার লেখক, সাহিত্যিক, গবেষক, সাংবাদিক ও বইপ্রেমীরা। 

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বাংলাদেশের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে ভিন্নতা আনতে কাজ করে চলেছে বুকওয়ার্ম অ্যাসোসিয়েশন। সেই ধারাবাহিকতায় ২০২২ সালে বছরব্যাপী ৫০ জন লেখকের সাক্ষাৎকার নিয়ে লেখকের গল্প আয়োজন করে তারা। যেখানে গুণী লেখকরা ছাড়াও ছিলেন তরুণ লেখকরা। মূলত নবীন, প্রচারের বাইরে থাকা মানসম্মত লেখকদের তুলে আনার প্রয়াসে তাদের এই উদ্যোগ। 

আনিকা ইসলাম ও তনিমা রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খ্যাতিমান কবি ও সম্পাদক বিমল গুহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন গবেষক ড. শফিকুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন কবি ও গবেষক ইমরান মাহফুজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বুকওয়ার্মের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও লেখক সোনিয়া তাসনিম খান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিমল গুহ বলেন, 'বই পড়তে হবে। বই জ্ঞান বাড়ায়। বইয়ের প্রতি ভালোবাসাটা তৈরি করে দিতে হবে। পৃথিবীতে অনেক বই। সব বই-ই জ্ঞান বাড়ায়। কিছু না কিছু শিখতে সাহায্য করে। বই আমাদের মনের জগতটাকে নাড়িয়ে দেয়।'

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. শফিকুল ইসলাম বলেন, 'বই আত্মার খোরাক মেটায়। সময়ের সঙ্গে আমাদের চাহিদা বদলায়। আমরা ভিন্ন হয়ে উঠি। বইয়ের সাথে নিজের সখ্যতা তৈরি করি। সবসময় এমনভাবে বই পড়া উচিত, যেন বার্ষিক পরীক্ষা চলছে।'

পাঁচ বছর আগে গড়ে ওঠা প্রতিষ্ঠানটি ধীরে ধীরে নিজেদের মেলে ধরতে পেরেছে। এটি সম্ভব হয়েছে বইয়ের সান্নিধ্যে থাকায়। বই একজন মানুষকে অন্যের চেয়ে আলাদা করে গড়ে তোলে। সভাপতির বক্তব্যে বিষয়টি তুলে ধরে ইমরান মাহফুজ আরও যোগ করেন, 'আপনি যা হতে চান, তা বইয়ের মাধ্যমে সম্ভব। বই আপনাকে অনন্য মানুষ হিসেবে গড়ে তুলবে। হয়তো দুইদিন দেরি হবে, কিন্তু বই আপনাকে গন্তব্যে পৌঁছে দেবেই। আমরা সবাই ভিন্ন সত্তার অধিকারী হলেও বইয়ের প্রতি ভালোবাসা সবার এক। যারা বই পড়ে, তারা অন্যদের চেয়ে আলাদা হয়ে যায়।'

একঝাঁক তরুণদের নিয়ে গড়ে ওঠা সংগঠন চেষ্টা করে যাচ্ছে লেখালেখিকেন্দ্রিক প্রচলিত ধারণার বাইরে আসার। সংগঠন ও আয়োজন নিয়ে বুকওয়ার্ম অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী নাহিদ বাদশা বলেন, 'আমাদের দেশে বেশিরভাগ জায়গায় শুধু সিনিয়র আর নামকরা লেখকরা সাক্ষাৎকার দেয়, অন্যরা সুযোগ পায় না। উদ্দেশ্য ছিল সেই ট্যাবু ভেঙে বাকিদের সুযোগ করে দেওয়া। সবাইকে একত্রে দেখা। সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। বই আসলেই মানুষের জীবনকে বদলে দেয়।'

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন