রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

দুবাইয়ে ১৬ শিল্পীর ৮০টি চিত্রকর্ম প্রদর্শনী  

আপডেট : ২২ মে ২০২৩, ১৩:৫৩

পালতোলা সাম্পান, সবুজের সমারোহে ঘেরা পাহাড় আর গাছগাছালির আদলে আঁকা চিত্রকর্ম। পাশেই শোভা পাচ্ছে বাংলাদেশ- ইউ এই ইর সুসম্পর্কের চিত্র দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের ছবি। বাংলার ঐতিহ্যবাহী বাহন রিকশা নিয়ে আঁকা ছবি। এক পা দু পা করে এগোলে এমন সারি সারি বহু চিত্রকর্ম দেখে জুড়িয়ে যাবে যে-কারও চোখ। দেয়ালে দেয়ালে ফুটে উঠেছে বাংলাদেশ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ইতিহাস-ঐহিত্য, সংস্কৃতি ও জীববৈচিত্র্যের নানা দিক বার্তা দিচ্ছে সুসম্পর্কের।

আমিরাত ও বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদযাপন ঘিরে দুবাই আমিরিকান ইউনিভার্সিটিতে এ চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেট। যেখানে স্থান পেয়েছে দুই দেশের ১৬ জন শিল্পীর ৮০টি চিত্রকর্ম। এতে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশের ১১ ও আমিরাতের পাঁচ জন চিত্রশিল্পী।

শনিবার (২০ মে) রাতে পাঁচ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। রবিবার থেকে বুধবার প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

চিত্রকর্ম প্রদর্শনী ও আর্ট ক্যাম্পের উদ্বোধনী দিনে দুই দেশের কূটনৈতিক পর্যায়ের ব্যক্তিরা ছাড়াও প্রবাসী বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। এসেছেন এশিয়ার আরও কয়েকটি দেশের নাগরিক। তারা দেখছেন ভিন্ন এক বাংলাদেশ। দেশি শিল্পীদের এমন চিত্রকলা সারা বিশ্বে পরিচয় করাতে চান সংশ্লিষ্টরা। এতে অংশগ্রহণকারী শিল্পীদের ব্যাপক আগ্রহ ও উৎফুল্ল মনোভাব লক্ষ্য করা গেছে। কূটনীতিকরাও বলছেন, এ আয়োজনের মাধ্যমে দুই দেশের সংস্কৃতির সেতুবন্ধ আরও জোরদার হবে।

আমিরাতের চিত্রশিল্পী জসিম আল ওয়াদি বলেন, ‘আমি একজন শিল্পী। আমার চিত্রকর্ম এখানে প্রদর্শন করা হচ্ছে। আমার মনে হয় আমিরাত ও বাংলাদেশের শিল্পীদের মধ্যে সম্পর্ক জোরদার করতে এ আয়োজন সেই সূচনা করে দিল।’

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী কনকচাঁপা চাকমা বলেন, ‘ঢাকার চিত্রশিল্পীরা ছাড়াও এখানে আমিরাতে পাঁচজন শিল্পী অংশ নিয়েছেন। এ যোগসূত্রটি আমাদের অনেক প্রয়োজন ছিল।’

দুবাই ও উত্তর আমিরাত বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল জানান, ১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক সফর ছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতে। কূটনৈতিক সম্পর্কের এ ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে নানা উদ্যোগ নিচ্ছে দেশটিতে থাকা বাংলাদেশ মিশন। তারই অংশ হিসেবে দুই দেশের চিত্রশিল্পীদের অংশগ্রহণে আয়োজন করা হয়েছে এ চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর।

আমিরাতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মো. আবু জাফর বলেন, দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী মাস থেকে যৌথভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেওয়া হচ্ছে। দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের মূল ভিত্তি হচ্ছে এ দেশে বসবাসকারী প্রায় ১০ লাখ বাংলাদেশি। কূটনৈতিক সম্পর্কের অনেক দিকের মধ্যে একটি হচ্ছে সংস্কৃতি। এ আয়োজনের মধ্য ‍দিয়ে দুই দেশের সেই সংস্কৃতির মেলবন্ধন আরও জোরদার হবে।

ইত্তেফাক/এসসি