বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

হতাশ মাশরাফি, বললেন, ‘এ কোন প্রজন্মকে দেখছি আমরা’

আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০২৩, ১৯:২৩

দেশের ক্রিকেট পরিস্থিতি বেশ উত্তপ্ত। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে যুক্ত না করে দল ঘোষণার পর থেকেই আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। আর এই ক্রিকেটারদের বাদ দেওয়ার পেছনে হাত রয়েছে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বলে মনে করছে সমর্থকেরা। এর মধ্যে সাকিব-তামিম দুজনের দেওয়া ভিডিও ও সাক্ষাত্কার যেন সেই আগুনে ঘি ঢেলেছে। এ নিয়ে গেল কয়েক দিন ধরেই সবখানে তর্ক চলছে। এর মধ্যেই বিশ্বকাপের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচের আগে অনুশীলন করতে গিয়ে পায়ে চোট পান সাকিব। এতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলতে পারেননি টাইগার অধিনায়ক। অবাক করা বিষয় হলো, অধিনায়কের ইঞ্জুরিতে বাংলাদেশের সমর্থকদের এক অংশ পালন করছে উচ্ছ্বাস, সঙ্গে আহ্বানও জানাচ্ছে দল থেকে বাদ দিয়ে দেশে ফিরেয়ে আনার। এমন পরিস্থিতি দেখে বেশ চটেছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

এ প্রসঙ্গে আক্ষেপ ঝেড়ে গত পরশু মাশরাফি তার ব্যক্তিগত ফেসবুকে অ্যাকাউন্টে লেখেন, ‘সাকিবের ইনজুরি ছিল, তাই আজ খেলতে পারেনি। দোয়া করি, সে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুক। কিন্তু অনেকেই দেখলাম লিখছে বা বলছে, তার যেহেতু ইনজুরি, তাহলে কি সে খেলবে, নাকি বসে থাকবে! আবার অনেকে লিখেছেন, তার যেহেতু ইনজুরি, তাহলে দল থেকে বের করে দেওয়া উচিত। এটা কি কোনো কথা হলো? এ কী অসুস্থতা...! এ কোন প্রজন্মকে দেখছি আমরা, কোন চিন্তা নিয়ে তারা বড় হচ্ছে? মনে এত হিংসার চাষ করে তারা নিজেদের জীবনেই বা কী অর্জন করবে...!’

জাতীয় দল কারো একার নয়, এটা আমাদের দেশের সবার দল। টাইগাররা আমাদের প্রতিনিধি উল্লেখ করে মাশরাফি লেখেন, ‘এটা কি কোনো এক জনের দল, নাকি আমাদের দেশের দল? শুধু সাকিব নয়, ওরা সবাই আমাদের দেশের প্রতিনিধি। বিশ্বকাপে আমাদের স্বপ্নের ধারক ওরা। কারও প্রিয় ক্রিকেটার থাকবে না, কারও প্রিয় ক্রিকেটার হয়তো প্রত্যাশামতো পারফর্ম করবে না। কিন্তু দলটা তো আমাদের সবার। এটাই মনে রাখা উচিত। বিশ্বকাপে দলের পাশে থাকা আর ওদের বিশ্বাস জোগানো এখন সবচেয়ে জরুরি।’

এর আগে গত বৃহস্পতিবার অনুশীলনের সময় ফুটবল খেলতে গিয়ে পায়ে ব্যথা পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। যদিও তা বেশি গুরুত্বর নয়, তবু ঝুঁকি নিতে চায়নি ম্যানেজমেন্ট। তাই শুক্রবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশ্বকাপের আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথমটিতে সাকিবের জায়গায় টস করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। আর এদিন সাকিবকে ছাড়াই দল জিতেছে দাপটের সঙ্গে। তামিম-লিটন-মিরাজের দারুণ ইনিংসে জয় পায় ৭ উইকেটে। আগামীকাল দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ মাঠে নামবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

ইত্তেফাক/এএইচপি