বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সন্দেহভাজন ব্রিটিশ গুপ্তচরকে আটকের দাবি চীনের

আপডেট : ০৮ জানুয়ারি ২০২৪, ১৯:৩৯

ব্রিটিশ সিক্রেট ইন্টেলিজেন্স সার্ভিসের (এমআই৬) হয়ে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের সন্দেহে এক বিদেশি নাগরিককে আটক করেছে চীন। তবে এই অভিযোগের বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি যুক্তরাজ্য।

বেইজিংয়ের জাতীয় নিরাপত্তা মন্ত্রণালয় সোমবার বলেছে, যুক্তরাজ্যের গুপ্তচর সংস্থা চীনের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তি চালাতে তৃতীয় দেশের কর্মীদের ব্যবহার করেছে।

মন্ত্রণালয়টি গোয়েন্দা ও কাউন্টার ইন্টেলিজেন্স উভয়ই তত্ত্বাবধান করে থাকে। মন্ত্রণালয় অভিযুক্ত অপরাধীকে হুয়াং মউমু হিসেবে চিহ্নিত করেছে। তিনি একটি বিদেশি পরামর্শকারী সংস্থার প্রধান ছিলেন বলে জানা গেছে। এছাড়াও আর কোনও ব্যক্তিগত বিবরণ বলেননি তিনি।

এমআই৬ ২০১৫ সালে হুয়াংকে নিয়োগ করেছিল এবং তার সঙ্গে গোয়েন্দা সহযোগিতা সম্পর্ক স্থাপন করেছিল বলে মন্ত্রণালয়ের দাবি।

মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তারপর থেকে সন্দেহভাজন গুপ্তচর ব্রিটিশ গোয়েন্দাদের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা সংগ্রহ করতে এবং এমআই৬-এর কর্মীদের চিহ্নিত করে ‘বিদ্রোহে উস্কানি দেওয়ার জন্য’ বেশ কয়েকবার চীন ভ্রমণ করেছিলেন।

লন্ডন হুয়াংকে যুক্তরাজ্য ও অন্যান্য স্থানে গোয়েন্দা প্রশিক্ষণ দিয়েছিল এবং তাকে বিশেষ গুপ্তচর সরঞ্জাম সরবরাহ করেছিল।

মন্ত্রণালয় বলেছে, সন্দেহভাজন ব্যক্তির অপরাধের প্রমাণ পেয়েছে এবং ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। হুয়াং যুক্তরাজ্যের কাছে এক ডজনের বেশি রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য পাচার করেছে।

যদিও পশ্চিমা দেশ ও চীন নিয়মিতভাবে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনেছে, তবে বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের ভাষ্য, এবারই প্রথম ব্রিটেনের সঙ্গে জড়িত কোনো গুপ্তচরকে ধরার দাবি করেছে চীন।

তবে মন্ত্রণালয় এর আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে কাজ করা গুপ্তচরদের গ্রেপ্তার করার দাবি করেছিল।

ইত্তেফাক/এসএটি