সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

‘শরীফার গল্প’ অবিকৃত রেখে চক্রান্ত রুখে দেওয়ার দাবি উদীচীর 

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২৪, ১৭:৪৩

সপ্তম শ্রেণির বইয়ে ‘শরীফার গল্প’ অবিকৃত রেখে পাঠ্যক্রম নিয়ে সব ধরনের মৌলবাদী, ধর্মান্ধ, সাম্প্রদায়িক চক্রান্ত রুখে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী। একইসঙ্গে গল্পটি নিয়ে অহেতুক বিতর্ক তৈরি না করার আহ্বান জানিয়েছে দেশের বৃহত্তম সাংস্কৃতিক এই সংগঠনটি। 

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) এক বিবৃতিতে উদীচীর কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অমিত রঞ্জন দে এ আহ্বান জানান। 

বিবৃতিতে তারা বলেন, গল্পটিতে সমাজের অন্যতম একটি জনগোষ্ঠী, তৃতীয় লিঙ্গ বা হিজড়াদের নিয়ে একটি নিরীহ কাহিনী বর্ণনা করা হয়েছে। একইসঙ্গে সেখানে এই জনগোষ্ঠীর মানুষের প্রতি সমাজের বাকিরা কী ধরনের বৈষম্যমূলক আচরণ করে—তা বর্ণনা করার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সব মানুষকে সমান চোখে দেখার জন্য উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে। 

বিবৃতিতে উদীচীর নেতারা বলেন, সম্প্রতি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক—এই গল্পটি নিয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিতর্ক তৈরির চেষ্টা করেছেন। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এবং অন্যান্য স্থানে আরও কিছু মানুষ এ গল্পের অহেতুক সমালোচনা করছেন। 

বিবৃতিতে বলা হয়, সচেতন মানুষ যারা গল্পটি পড়েছেন, তারা সবাই একমত হয়েছেন যে, এখানে শুধুমাত্র থার্ড জেন্ডার বা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের বিষয়েও সচেতনতা গড়ে তোলার ইতিবাচক প্রয়াস করা হয়েছে। সমকামিতা বা যৌনতার মতো কোনো বিষয়ের অবতারণা করা হয়নি। অথচ, বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য এরই মধ্যে একটি কমিটি করেছে সরকার, যারা কিনা গল্পটিতে সামান্য পরিবর্তন আনার ইঙ্গিতও দিয়েছেন। 

উদীচী মনে করে, এ ধরনের কমিটি করার পর গল্পটিতে পরিবর্তন আনা হলে তা পক্ষান্তরে মৌলবাদী, সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকেই প্রশ্রয় দেওয়ার সামিল হবে। 

ইত্তেফাক/ডিডি