সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

রোহিঙ্গাদের জন্মনিবন্ধন সনদ-পাসপোর্ট তৈরি চক্রের ২৩ সদস্য গ্রেপ্তার

আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫:০০

চিহ্নিত অপরাধী ও রোহিঙ্গাদের অবৈধভাবে জন্মনিবন্ধন সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্ট বানিয়ে দেওয়া একটি চক্রের ২৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। 

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়।

ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ জানান, ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগের একাধিক টিম রাজধানীর আগারগাঁও, মোহামম্মদপুর, যাত্রাবাড়ী, বাড্ডায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়ে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিপুল পরিমাণ পাসপোর্ট সংক্রান্ত ডকুমেন্ট, পাসপোর্ট এবং কম্পিউটারসহ ৩ রোহিঙ্গা নারী ও পুরুষ, ১০ জন বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করে। তারা পাঁচ দিনের পুলিশ রিমান্ডে আছে।

ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ। ছবি: ইত্তেফাক

তাদের দেওয়া তথ্য সংগৃহীত ডকুমেন্টস বিশ্লেষণ করে ২৫ ফেব্রুয়ারি তারিখ দিনে ও রাতে কক্সবাজার, টাঙ্গাইল এবং ঢাকায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়ে ৩২ আনসার সদস্যসহ রোহিঙ্গা ও দালাল চক্রের ৩৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদের কাছ থেকে ১৭টি পাসপোর্ট, ১৩টি এনআইডি, ৩৫টি কম্পিউটার, ৩টি প্রিন্টার, ২৪টি মোবাইল কেন এবং পাসপোর্ট তৈরির সংশ্লিষ্ট শত শত দলিলপত্র জব্দ করেছে।

শক্তিশালী এই চক্রটি মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা শিশু, নারী ও পুরুষদেরকে লক্ষাধিক টাকার বিনিময়ে জন্ম সনদ, এনআইডি ও পাসপোর্ট বানিয়ে দেয়।

চক্রটির একটি দল কক্সবাজার, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি থেকে রোহিঙ্গাদেরকে ঢাকায় নিয়ে আসে। আরেকটি দল এদের জন্য জন্ম সনদ, এনআইডি বানিয়ে দেয়। 

ছয় ঘণ্টার মধ্যে জন্ম সনদের জন্য তারা ৫ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা নেয়। তিন দিনের মধ্যে এনআইডি করে নেওয়ার জন্য ২৫ হাজার এবং পাসপোর্ট তৈরি করার জন্য ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে থাকে বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। 

ইত্তেফাক/কেকে