বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মিয়ানমারে সংঘাত

ভারী গোলা-মর্টারের শব্দে কাঁপলো জাংছড়ি, আতঙ্কে ছোটাছুটি

আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৪৫

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের জাংছড়ি সীমান্তের ওপারে নতুন করে একের পর এক মর্টারশেল, আর্টিলারি বোমা বিস্ফোরণ ও প্রচণ্ড গুলাগুলির শব্দ শোনা গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। রোববার রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে শুরু হয়ে ঘণ্টাব্যাপী শব্দ শোনা যায়। আজ সোমবারও থেমে থেমে গুলির শব্দ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে ছোটাছুটি করছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ছাবের আহমেদ জানান, নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড জাংছড়ি সীমান্তের ৪৬ ও ৪৭ পিলার পুরান মাইজ্জা ক্যাম্প, অংচাফ্রী ক্যাম্প ও সালি ডং ক্যাম্পের ওপারের মিয়ানমার অভ্যন্তরে অগণিত মর্টার ও আর্টিলারি বোমা বিস্ফোরণ হয়েছে। এসব গোলার আওয়াজে এপারে যেন ভূমিকম্প সৃষ্টি হচ্ছিল।

আর্টিলারি বোমা বিস্ফোরণ ও প্রচণ্ড গুলাগুলির শব্দে কেঁপেছে জাংছড়ি সীমান্ত। ছবি: ইত্তেফাক

নাইক্ষংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবছার বলেন, ওপারে গুলাগুলি ও আর্টিলারি মর্টারশেল বিস্ফোরণের আওয়াজে এপারের গ্রামের অনেক ঘরবাড়ি কেঁপে উঠেছে। এতঙ্কে এলাকাবাসী ছোটাছুটি করছেন।

নাইক্ষংছড়ি সদর ইউনিয়নের সংবাদকর্মী মো. ইউনুসও বলেন, মিয়ানমারের ওপারে সীমান্তে সংঘটিত গোলাগুলিতে এপারে কেঁপে উঠেছে।

এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবির ব্যাটালিয়নের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া না গেলেও বিজিবিকে সতর্ক অবস্থায় দেখা গেছে।

বন্ধ হয়ে যাওয়া সাতটি স্কুল এখনো খোলেনি

এদিকে বন্ধ হয়ে যাওয়া সাতটি স্কুল এখনো খোলেনি। তবে ঘুমধুমে 'পরিস্থিতি পুরো স্বাভাবিক হওয়ায়' স্কুলগুলো আগামী কয়েকদিনের মধ্যে খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা শিক্ষা অফিসার ত্রিরতন চাকমা।

ইত্তেফাক/এসকে