শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ইউরোপের চার দেশের সঙ্গে ভারতের ১০০ বিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য চুক্তি

আপডেট : ১১ মার্চ ২০২৪, ১৮:২৪

ইউরোপের চার দেশের সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ভারত। এর মধ্যে ১৫ বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ ও ভারতে ১০ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। খবর আরটির।

গত শনিবার নয়াদিল্লিতে স্বাক্ষরিত ট্রেড অ্যান্ড ইকোনমিক পার্টিসিপেশন এগ্রিমেন্ট (টিইপিএ) অনুসারে, আইসল্যান্ড, লিচেনস্টাইন, নরওয়ে ও সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে আমদানি শুল্ক কমাতে চুক্তি করেছে ভারত। চারটি দেশই ইউরোপীয় মুক্ত বাণিজ্য সমিতির (ইএফটিএ) অন্তর্ভুক্ত।

ইএফটিএ এক বিবৃতিতে বলেছে, চুক্তিটির ফলে  সমন্বিত এবং আরও স্থিতিস্থাপক সাপ্লাই চেইন ও ব্যবসার জন্য নতুন সুযোগ নিয়ে আসবে। এর ফলে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ প্রবাহ বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ঘটবে।

এই চুক্তির মাধ্যমে ভারত ইএফটিএ থেকে আরও বেশি বিদেশি বিনিয়োগ পাবে। এতে দেশটি শেষ পর্যন্ত লাভবান হবে বলে মন্তব্য করেছেন সুইস ফেডারেল কাউন্সিলর গাই পারমেলিন।

এদিকে অফিশিয়াল এক্স অ্যাকাউন্টে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, চুক্তিটি সরকারের অর্থনৈতিক অগ্রগতির চাপ মোকাবিলার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ এবং তরুণদের জন্য কর্মসংস্থান তৈরিতে কাজে আসবে।

তিনি আরও বলেছেন, ‘অনেক বিষয়ে কাঠামোগত বৈচিত্র্য থাকা সত্ত্বেও, আমাদের অর্থনীতিতে পরিপূরকতা রয়েছে যা সব দেশের জন্যে মঙ্গলের।’

গত দশকে ভারতীয় অর্থনীতি ১১তম থেকে পঞ্চম বৃহত্তমে পরিণত হওয়ার বিষয়টি তিনি উল্লেখ করেছেন।

অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত ভারতীয় জিডিপি বেড়েছে ৮ দশমিক ৪ শতাংশ। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল বলেছে, ভারতের অর্থনীতি বিশ্বের দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতি।

জানুয়ারিতে প্রকাশিত থিঙ্ক ট্যাঙ্ক গ্লোবাল ট্রেড রিসার্চ ইনিশিয়েটিভের প্রতিবেদন অনুসারে,  ভারতের ‘বৃহৎ ও দ্রুত বর্ধনশীল বাজার’ ধরতে একাধিক দেশ চলতি বছর বাণিজ্য চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

ভারত ও যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইইউ, সুইজারল্যান্ড, নরওয়ে এবং রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন ইউরেশিয়ান অর্থনৈতিক ইউনিয়নসহ বেশ কয়েকটি প্রধান অর্থনীতির মধ্যে বাণিজ্য চুক্তির আলোচনা চলছে।

গত মাসে দ্য হিন্দু বিজনেস লাইনকেস দেওয়া সাক্ষাৎকারে ব্রিটিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, সম্প্রতি ২০২১ সাল থেকে চলমান যুক্তরাজ্যের সঙ্গে নয়াদিল্লির বাণিজ্য আলোচনা বাধাগ্রস্ত হয়েছে। কারণ তারা আরও অনুকূল শর্ত চায়। ভারতীয় কোম্পানিগুলো লন্ডনকে ছাড়াই আমদানি-শুল্ক ছাড় প্রত্যাখ্যান করছে। তারা কাজ ও ব্যবসার জন্য যুক্তরাজ্যে ভারতীয়দের সহজ ও অস্থায়ী প্রবেশের প্রস্তাব দিয়েছে।

এদিকে শিখ নেতা হরদিপ সিং নিজ্জার হত্যার ঘটনায় কানাডার সঙ্গে ভারতের বাণিজ্য আলোচনাও বিলম্বিত হয়েছে।

ইত্তেফাক/এসএটি